kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

কোটালীপাড়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার রাধাগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মধুমালা বিশ্বাসের (সিস্টার মেরী দেবারতী) বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাননি বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সরকারি বিধি মোতাবেক মফস্বল এলাকার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ভর্তি ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করা থাকলেও প্রধান শিক্ষক মধুমালা বিশ্বাস এক হাজার ৪২০ টাকা করে নিচ্ছেন। এ ছাড়া কোচিং ফি বাবদ প্রতি মাসে এক হাজার টাকাসহ অতিরিক্ত মাসিক বেতন নিচ্ছেন। বিদ্যালয় থেকে বেশি দামে ছাত্র-ছাত্রীদের পোশাক ও বই-খাতা কিনতে বাধ্য করছেন। আর এভাবে সুকৌশলে প্রধান শিক্ষক মধুমালা বিশ্বাস প্রতি মাসে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

অভিভাবক দেবাশীষ রায় বলেন, ‘আমাদের এলাকার মানুষ খুবই দরিদ্র। এ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ভর্তিতে এক হাজার ৫০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। ২০০ টাকা করে দিতে হচ্ছে মাসিক বেতন। পোশাক বাবদ নেওয়া হচ্ছে দেড় হাজার টাকা। ফলে আমাদের ছেলে-মেয়েদের এই স্কুলে লেখাপাড়া করানো কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।’

অভিভাবক বিমল শিকদার বলেন, ‘বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঠিকমতো ক্লাস নেন না। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে রূঢ় আচরণ করেন। কম্পানির কাছ থেকে কমিশন নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের নিষিদ্ধ গাইড বই পড়তে উৎসাহিত করেন। বাজারের চেয়ে দ্বিগুণ মূল্যে বিদ্যালয় থেকে খাতা-কলম কিনতে বাধ্য করেন।’

রাধাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অমৃত লাল হালদার বলেন, ‘বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মধুমালা বিশ্বাস তাঁর খেয়াল-খুশিমতো বিদ্যালয়টি চালাচ্ছেন। আমরা প্রতিবাদ করায় আমাদের বিরুদ্ধে তিনি হয়রানির অভিযোগ এনেছেন।’

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক মধুমালা বিশ্বাস তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত হলেও এটি একটি মিশনারি স্কুল। মিশনারি স্কুলের নিয়ম-কানুন মেনেই বিদ্যালয়টি পরিচালিত হচ্ছে।’

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘বিদ্যালয়টির নানা অনিয়মের কথা আমি শুনেছি। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

মন্তব্য