kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে সংঘর্ষ আহত ১৫

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ১৫ জন আহত হয়। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার আদ্রা উত্তর ইউনিয়নের মেরকট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় চারটি ঘর ও একটি দোকানে ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এলাকাবাসী জানায়, নাঙ্গলকোটের মেরকট দক্ষিণ পূর্বপাড়া মাঠে ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করে মেরকট গ্রামের রংধনু একতা ক্লাবের সদস্যরা। মঙ্গলবার রাতে আদ্রা গ্রামের আকিল ক্লাব বনাম মেরকট গ্রামের আলাউদ্দিন স্পোর্টিং ক্লাবের মধ্যে তৃতীয় রাউন্ডের খেলা চলছিল। খেলার একপর্যায়ে আকিল ক্লাব একটি নো বলের আবেদন করে। আম্পায়ার নো বল না দেওয়ায় উভয় ক্লাবের সদস্যদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে আকিল ক্লাবের সদস্যরা তাদের গ্রামের মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে লোকজন জড়ো করে মেরকট গ্রামবাসীর ওপর হামলা চালায়। এ সময় মেরকট গ্রামের আজাদ হোসেন বদির মুদি দোকান এবং সাথী আক্তার, রবিউল হক, বুনাই আমিন ও আব্দুল গফুরের ঘর ভাঙচুর করা হয়। সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়। গুরুতর আহত আলী আহাম্মদের স্ত্রী জাহানারা বেগমকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ইউপি সদস্য ও রংধনু একতা ক্লাবের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘ঘটনাটি শোনার পর আমি থানায় ফোন করি। পুলিশ আসার আগেই বাড়িঘর, দোকানপাট ভাঙচুর করে লুটপাট চালায় আদ্রা গ্রামের লোকজন।’

আদ্রা উত্তর ইউপি সদস্য ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বাবুল মিয়া বলেন, ‘মেম্বার মোস্তাফিজুর রহমান আমাকে ফোন করে ঘটনাটি জানিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে আমি পরিবেশ শান্ত করেছি।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা