kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ভালুকায় কিশোরের লাশ

চারজনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের ভালুকায় কিশোর আমিরুল ইসলামের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমিনুল ইসলামের মা আছমা খাতুন বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ভালুকা মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো সাত-আটজনকে আসামি করা হয়েছে।

আমিরুল ইসলাম ভালুকা উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের মরচি গ্রামের মোস্তফা মিয়ার ছেলে। সে রাজমিস্ত্রির কাজ করত।

থানা ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কাজ থেকে বাড়ি ফেরে আমিনুল ইসলাম। দুপুরের খাবার খেয়ে পুনরায় বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় সে। পরে রাতে বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি করে। কিন্তু কোথাও পাওয়া যায়নি তাকে। এর মধ্যে গত সোমবার বিকেলে মরচি গ্রামের গজারি বনে শুকনো পাতা কুড়ানোর সময় একদল নারী একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে। তারা ঘটনাটি আশপাশের লোকজনকে জানায়। খবর পেয়ে আমিনুলের বাবা ওই বনে গিয়ে লাশটি শনাক্ত করেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ওই দিন সন্ধ্যায় লাশটি উদ্ধার করে এবং পরদিন মঙ্গলবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। উদ্ধারের সময় লাশের মুখমণ্ডল রাবারের আঠা (রাবার সলিউশন) লাগানো একটি পলিথিনে ঢাকা ছিল। এ সময় তার পকেট থেকে ভারতীয় ব্র্যান্ডের একটি আঠার কৌটা উদ্ধার করা হয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভালুকা মডেল থানার এসআই ইকবাল হোসেন কালের কণ্ঠকে জানান, আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা