kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

খুন হওয়া গৃহবধূর সন্তানকে র‌্যাবের অনুদান

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাজীপুর মহানগরীর ভাওরাইদ এলাকায় স্বামীর হাতে খুন হওয়া গৃহবধূ আফরোজার শিশুসন্তানকে এক লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে র‌্যাব। শিশুটির পড়ালেখা ও ভরণ-পোষণ বাবদ সোমবার বিকেলে এ টাকা দেওয়া হয়।

র‌্যাব-১-এর গাজীপুর ক্যাম্পের কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, গত ৩ জানুয়ারি ভাওরাইদের ভাড়া বাসায় স্বামী শাহজাহান মিয়ার হাতে খুন হন গার্মেন্ট শ্রমিক আফরোজা বেগম (২৬)। শাহজাহান স্ত্রীর লাশ টয়লেটের সেপটিক ট্যাংকে রেখে পালিয়ে যায়। আফরোজার পাঁচ বছরের মেয়ে সাথীকে ভরণ-পোষণ ও লালন-পালনের কেউ ছিল না। গত ১১ জানুয়ারি র‌্যাব ঘাতক শাহজাহানকে গ্রেপ্তার করে এবং শিশু সাথীর দায়িত্ব নেয়। এরই অংশ হিসেবে র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক মামার সঙ্গে থাকা সাথীর বর্তমান লেখাপড়া ও ভরণ-পোষণের জন্য এক লাখ টাকা অনুদান এবং দিনমজুর মামা আনোয়ার হোসেনকে চাকরির ব্যবস্থা করে দেন।

তিন ইটভাটা ভাঙলেন

ভ্রাম্যমাণ আদালত

এদিকে অনুমোদন ও ছাড়পত্র না থাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাইমাইল এলাকার তিনটি ইটভাটা ভেঙে দিয়েছেন। পাশাপাশি ভাটা মালিকদের দুই লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবাইয়া ইয়াসমিনের নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ও অনুমোদন ছাড়াই প্রভাব খাটিয়ে ইট তৈরি করে আসছিল নগরীর কোনাবাড়ী থানার বাইমাল এলাকার সৈনিক ব্রিকস এবং বাইমাইল এলাকার ফরিদ অ্যান্ড কোং ও আব্দুল মালেক ব্রিকস। সোমবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবাইয়া ইয়াসমিনের ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই তিন ভাটায় অভিযান চালান। প্রথমে ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পানি দিয়ে আগুন নেভানো হয়। পরে ভেকু মেশিন দিয়ে ভাটাগুলো ভেঙে দেওয়া হয়। এ সময় সৈনিক ব্রিকস ভাটার মালিককে এক লাখ, ফরিদ অ্যান্ড কোংকে ৫০ হাজার ও আব্দুল মালেক ব্রিকসের মালিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

 

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা