kalerkantho

রবিবার। ১০ নভেম্বর ২০১৯। ২৫ কার্তিক ১৪২৬। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বেতাগীতে ৯ মাস ধরে স্কুলে না গিয়েও বেতন নিচ্ছেন প্রধান শিক্ষক

বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরগুনার বেতাগী উপজেলার ফুলতলা নুরুন্নেচ্ছা নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান স্কুল না গিয়েও সরকারি বেতন-ভাতা ভোগ করছেন। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা চাকরি চলে যাওয়ার ভয়ে এ ব্যাপারে মুখ খুলছেন না।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, সর্বশেষ গত ৪ এপ্রিল বিদ্যালয়ে যান প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান। এরপর আর বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পা রাখেননি তিনি। স্কুলে না গিয়েও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সোহরাব হোসেন ও আব্দুল খালেকের মাধ্যমে হাজিরা খাতা বাড়িতে এনে স্বাক্ষর করছেন তিনি। একইভাবে বাড়িতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এনে স্বাক্ষর করে মাসিক বেতন-ভাতাদি উত্তোলন করছেন।

জাতীয় বেতন কাঠামো অনুসারে ২৩ হাজার টাকা পান প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান। সেই হিসেবে গত ৯ মাসে সরকারের কাছ থেকে দুই লাখ সাত হাজার টাকা উত্তোলন করছেন তিনি।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান বলেন, ‘স্কুলের অফিস সহকারী নিয়োগ নিয়ে মতানৈক্য হওয়ায় আমার বিরোধী পক্ষ এসব বানিয়ে বলছে।’

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সৈয়দ গোলাম মাসুদ বলেন, ‘বিপক্ষের লোকজন এসব বানিয়ে বলছে।’

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহাদাত আলী মোল্লা বলেন, ‘প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মৌখিকভাবে কিছু অভিযোগ শুনেছি। তবে কেউ লিখিতভাবে অভিযোগ করলে নিয়মানুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারব।’

বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজীব আহসান বলেন, ‘এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্ত করার জন্য বলা হয়েছে। তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা