kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বগুড়ায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ার শেরপুর উপজেলার গোপালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঞ্জুমান আরা খানমের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাৎ, অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েছেন অভিভাবকরা। অন্যদিকে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিদ্যালয়ের নামে স্লিপের বরাদ্দের ৪০ হাজার, নলকূপ স্থাপনের ২০ হাজার, খাতাপত্রের ১০ হাজার ও উঠান বৈঠকের পাঁচ হাজার টাকার কাজ না করে তা আত্মসাৎ করেছেন প্রধান শিক্ষক আঞ্জুমান আরা খানম। এ ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে অভিভাবকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, অকারণে শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে।

এসব ঘটনায় ৫ নভেম্বর প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও অভিভাবকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন শাখায় লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু অভিযোগের পরও প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। গত শনিবার থেকে প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবি করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে।

বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য শামীম আহমেদ ও আব্দুল হাই বলেন, বিদ্যালয়ে সরকারি বরাদ্দের টাকা দিয়ে কোনো কাজ না করে তা আত্মসাৎ করেছেন প্রধান শিক্ষক। এ ছাড়া কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অকারণে নানাভাবে নির্যাতন করেন তিনি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঞ্জুমান আরা খানম বলেন, ‘আমি কোনো অনিয়ম-দুর্নীতি কিংবা অর্থ আত্মসাতের সঙ্গে জড়িত নই।’ শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিয়াকত আলী সেখ বলেন, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা