kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদে চাকরি

রাজবাড়ীতে আরো এক কনস্টেবলের বিরুদ্ধে মামলা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

১১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুক্তিযোদ্ধার ভুয়া সনদে চাকরি গ্রহণ করায় রাজবাড়ী থানায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে মো. সাদ্দাম হোসেন নামের আরো এক কনস্টেবলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। সাদ্দাম রাজবাড়ী জেলা শহরের বড়লক্ষ্মীপুর গ্রামের দরবেশ আলী মণ্ডলের ছেলে। তিনি বর্তমানে ঢাকার এসবিতে কর্মরত রয়েছেন। মামলার বাদী রাজবাড়ী জেলা পুলিশের রিজার্ভ অফিসার এসআই কবির আহম্মেদ।

রাজবাড়ীর পুলিশ লাইনে ২০১০ সালের ২৫ মে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে কনস্টেবল পদে চূড়ান্তভাবে নিয়োগ দেওয়া হয় মো. সাদ্দাম হোসেনকে। ২০১১ সালে প্রথমবারের মতো সাদ্দামের বাবা দরবেশ আলী মণ্ডলের মুক্তিযোদ্ধা সনদ যাচাইয়ের জন্য পুলিশ সদর দপ্তরের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। ২০১৬ সালে ফের ওই সনদ যাচাই-বাছাই করা হয়। মন্ত্রণালয় থেকে গত বছরের শেষদিকে মুক্তিযোদ্ধা সনদটি জাল হিসেবে উল্লেখ করে তা পত্রের মাধ্যমে পুলিশ সদর দপ্তরকে জানানো হয়। সে আলোকে গতকাল রাজবাড়ী থানায় সাদ্দামের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এর আগে গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর একই অভিযোগে রাজবাড়ী জেলা শহরের বিনোদপুর গ্রামের মো. নুরুল ইসলামের ছেলে কনস্টেবল মো. আব্দুল্লাহ আল নোমান আশিক এবং ২০১১ সালের ১৮ অক্টোবর বালিয়াকান্দি উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের কনস্টেবল মো. সোহাগ শেখসহ তিনজনের নামে মামলা করা হয়। ওই মামলায় সোহাগ শেখ এবং প্রতারকচক্রের সদস্য একই উপজেলার বাকশিডাঙ্গা গ্রামের বাচ্চু শেখ ও তার সহযোগী আলোকদিয়া গ্রামের গোবিন্দ মণ্ডলকে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওই তিনজন কারাগারে রয়েছে।

 

মন্তব্য