kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৭ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৭ সফর ১৪৪১       

চিরিরবন্দরে শ্লীলতাহানি, উলিপুর ও বাঘায় নির্যাতন

বিক্ষোভ গ্রেপ্তার বহিষ্কার

অবরোধের ফলে দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কে পাঁচ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়

দিনাজপুর, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) ও বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিক্ষোভ গ্রেপ্তার বহিষ্কার

ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির প্রতিবাদে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার আলোকডিহি জেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে গতকাল দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কে অবরোধসহ বিক্ষোভ করে বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার আলোকডিহি জেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শনিবার সকালে বিদ্যালয়টির সামনে দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে অভিভাবকসহ শিক্ষার্থীরা এ বিক্ষোভ করে। ঘণ্টাব্যাপী অবরোধের ফলে দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কে পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক মুকুল চন্দ্র দাস পরীক্ষার খাতা দেখার কথা বলে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ঘরে ডেকে নেন। এ সময় তিনি ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি ঘটান। এ ঘটনায় ছাত্রী নিজেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করে। পরে ওই দিনই বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভায় ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এদিকে কুড়িগ্রামের উলিপুরে স্ত্রীকে নির্যাতন মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে উলিপুর শহীদ মিনার চত্বর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জানা গেছে, পৌরসভার উলিপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু জাফর চার বছর আগে ফুলবাড়ী উপজেলার রাবাইতারী গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে শামীমা ফেরদৌসকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই ওই শিক্ষক তিন লাখ টাকার দাবিতে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন। সর্বশেষ গত ২৬ নভেম্বর বিকেলে আবু জাফর শামীমাকে পিটিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন। পরে স্বজনরা এসে তাঁকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় শামীমা গত বৃহস্পতিবার আবু জাফরসহ চারজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে উলিপুর থানায় মামলা করেন। উলিপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে বলাৎকারচেষ্টার অভিযোগে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার কালীদাসখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী এক শিক্ষককে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজার উপস্থিতিতে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ওই শিক্ষককে সাময়িক বহিষ্কার করে।

বহিষ্কৃত ওই শিক্ষকের নাম রুহুল আমিন। এর আগে তাঁর বহিষ্কারের দাবিতে পরীক্ষা বর্জন করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিক্ষোভ করে।

তবে অভিযুক্ত শিক্ষক রুহুল আমিন বলেন, ‘এসএসসি টেস্ট পরীক্ষার ফলাফল তৈরির জন্য প্রধান শিক্ষক আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। পরীক্ষায় ৩৪ জন শিক্ষার্থী অকৃতকার্য হয়েছে। তাদের কৃতকার্য না করায় তারা আমার বিরুদ্ধে গুজব রটিয়ে সম্মানহানির চেষ্টা করছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা