kalerkantho

ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ সংস্কার না করায় ভাঙনের আশঙ্কা

রানীনগর ও মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



দেশের উত্তর জনপদের ধান উৎপাদনের জেলা হিসেবে খ্যাত নওগাঁর রানীনগর উপজেলা। ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত নওগাঁর ছোট যমুনা নদীর বেড়িবাঁধ সংস্কার না করায় রানীনগর ও আত্রাই উপজেলার বাসিন্দাদের মনে ভাঙন আতঙ্ক বিরাজ করছে। উপজেলার নান্দাইবাড়ী-মালঞ্চি এলাকায় যমুনা নদীর তীর ঘেঁষে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ রক্ষার জন্য গত বছর স্থানীয় একটি মাদরাসার কর্তৃপক্ষ প্রায় ২৫ হাজার টাকা খরচ করে সেবারের মতো রেহাই পায়। প্রায় ১৪ মাস অতিবাহিত হলেও নওগাঁর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপ চোখে পড়ছে না। তারা বলছে, ওই বেড়িবাঁধটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের নয়। তাহলে এই বাঁধ রক্ষার দায়িত্ব কার? এমন প্রশ্ন করছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী। বর্তমানে দুই উপজেলায় প্রায় ২২ হাজার হেক্টর উঠতি রোপা আমন ধান নিয়ে বন্যা আতঙ্কে রয়েছে সাধারণ চাষিরা। 

এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড নওগাঁর নির্বাহী প্রকৌশলী সুধাংশু কুমার সরকার বলেন, ‘যদি ভেঙেই যায় তা ঠেকানোর চেষ্টা করা হবে।’

মন্তব্য