kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

ইবিতে ভর্তি জালিয়াতি

ক্ষমা চেয়ে পার!

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৪ এপ্রিল, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষে (স্নাতক) বিশেষ কোটায় (খেলোয়াড়) ভর্তির আবেদনপত্রে দুজনের বিরুদ্ধে জালিয়াতির প্রমাণ পেয়ে তাদের ভর্তির আবেদনপত্র বাতিল করা হয়েছে। পরে ভুল স্বীকার করায় তাদের ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মেহেদী হাসান রয়েল (কোটা রোল-২৭) ও শাহী শাহানুর হামিদ (কোটা রোল-৩৪) নামের দুই ফুটবলারের বিরুদ্ধে জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) ভুয়া সদস্য সনদ দিয়ে ভর্তির চেষ্টা চালানোর অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

খেলোয়াড় কোটায় ভর্তি কমিটি সূত্রে জানা যায়, তাদের ভর্তির আবেদনপত্র পাওয়ার পর তা সরেজমিনে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি), বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনসহ (বাফুফে) সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন জায়গায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি যায়। তদন্তে ওই দুই আবেদনকারীর কোনো তথ্য বাফুফের রেজিস্টারে পাওয়া যায়নি। বাফুফে কর্তৃপক্ষ ওই দুজনের সনদ ভুয়া বলে তদন্ত কমিটিকে নিশ্চিত করে।

এদিকে মেহেদী হাসান রয়েল ও শাহী শাহানুর হামিদ নামের ওই দুই ভর্তীচ্ছুর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারকে বাদী হয়ে মামলা করার অনুরোধ করে তদন্ত কমিটি। তবে আবেদনকারীরা ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি ভবিষ্যতে এমন কাজ করবে না বলে অঙ্গীকার করে। তাদের ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ক্রীড়া কোটায় ভর্তি কমিটির সভায় তাদের নিঃশর্ত ক্ষমা ঘোষণা করা হয়।

সভা শেষে খেলোয়াড় কোটায় ভর্তির সমন্বয়কারী অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান জানান, কোটায় ভর্তিতে আবেদনকারী দুই খেলোয়াড়ের জালিয়াতির সত্যতা পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে তাদের আবেদনপত্র বাতিল করা হয়েছে। অভিযুক্তরা তাদের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবে না বলে লিখিত দিয়েছে। সব কিছু বিবেচনা করে প্রশাসন তাদের ক্ষমা করে দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, অনিয়ম-দুর্নীতি, জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়া কাউকে ভর্তির সুযোগ দেওয়া হবে না। পরবর্তী বছর থেকে এ ধরনের জালিয়াতি ধরা পড়লে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ২৬ এপ্রিল থেকে বিশেষ কোটায় ভর্তি কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

 

মন্তব্য