kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১০ আষাঢ় ১৪২৮। ২৪ জুন ২০২১। ১২ জিলকদ ১৪৪২

নাদিনের কান্না থামছেই না

পিন্টু রঞ্জন অর্ক   

১৮ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নাদিনের কান্না থামছেই না

ইসরায়েলি বিমান হামলায় তার ঘরবাড়ি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। চোখের সামনে বোমাবর্ষণে প্রতিবেশীর মৃত্যু দেখেছে বছর দশেকের মেয়েটি। তার ক্ষমতা নেই, জানা নেই যুদ্ধ থামানোর কোনো জাদুমন্ত্রও। ধ্বংসস্তূপের দিকে তাকিয়ে অসহায় কান্নায় ভেঙে পড়ছে গাজার নাদিন আবদেল তাইফ। বলছে, ‘কী করব আমি? আমার কী ক্ষমতা আছে? আমার বয়স তো মাত্র ১০ বছর।’

ইসরায়েলি বিমান হামলায় রেহাই পাচ্ছে না শিশুরাও। ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি মূলত সংবাদ সংস্থা মিডলইস্ট আইয়ের। সেখানে দেখা যাচ্ছে, আরো কয়েকজন শিশুর সঙ্গে দাঁড়িয়ে কথা বলছে নাদিন। পেছনে তাদের বাড়ির ধ্বংসস্তূপ। সেসব দেখিয়ে ছোট্ট নাদিন কেঁদে কেঁদে বলছে, ‘এসব দেখলে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি। আপনি সব দেখুন। আমার বয়স তো মাত্র ১০ বছর। জানি না কী করা উচিত। এসব দেখলে ভয় পাই। যখনই এসব দেখি কাঁদি। নিজেকে বলি, কেন আমাদের ওপরই হামলা হচ্ছে? আমরা এমন কী করেছিলাম যে এভাবে মরতে হবে? বাড়ির লোকজন বলে, তারা আমাদের ঘৃণা করে কারণ আমরা মুসলিম। মুসলিমদের সঙ্গে কেন এমন করতে হবে? আমার চারপাশের শিশুদের দেখতে পাচ্ছেন? ওরা তো শিশু। ওদের কী দোষ? কেন আপনি ওদের ওপর মিসাইল ছুড়বেন; ওদের মেরে ফেলবেন? এটা তো ঠিক না। এখন আমি কী করব, বলুন? ওই ধ্বংসস্তূপ সরাব? আমার সত্যিই ভয় করছে। আমার লোকদের জন্য আমি সব কিছু করতে পারি। কিন্তু কী করা উচিত এখন, সেটাই তো বুঝতে পারছি না।’ সাংবাদিককে নিজের ইচ্ছারও কথা বলল নাদিন। ‘বড় হয়ে আমি ডাক্তার হতে চাই, যাতে মানুষকে সাহায্য করতে পারি। কিন্তু এখন তো কিছুই করে উঠতে পারছি না।’

আলজাজিরার ‘এজে স্ট্রিম’ এর নির্বাহী প্রযোজক ব্যারি ম্যালোন নিজের টুইটারে ভিডিওটি শেয়ারের পর এটি বিশ্ববাসীর নজর কাড়ে। এক দিনেই ভিডিওটি পাঁচ মিলিয়ন ভিউ পেয়েছে। নাদিন ও তাঁর পরিবার নিরাপদে আছে কি না এ নিয়ে অনেকে উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছে। ম্যালোনের পোস্টে কমেন্ট করে সেই উৎকণ্ঠা দূর করেছেন নাদিনেরই এক শিক্ষক। তিনি লিখেছেন, ‘এই মেয়েটি আমার ছাত্রী। সে সুন্দরভাবে তার এবং প্রতিবেশীদের সঙ্গে কী ঘটছে তা ব্যাখ্যা করেছে। সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ; নাদিন এবং তার পরিবার নিরাপদে আছে। তবে নাদিন এখনো সেই দুঃসহ স্মৃতি ভুলতে পারেনি। তার কান্না এখনো ফুরোয়নি।’

সূত্র : মিডলইস্ট আই, টাইমসনাউনিউজ ডটকম

 



সাতদিনের সেরা