kalerkantho

শুক্রবার । ২০ চৈত্র ১৪২৬। ৩ এপ্রিল ২০২০। ৮ শাবান ১৪৪১

রঙ্গভরা বঙ্গদেশ

টাকাবিষয়ক যেকোনো কিছু উপভোগ করা যায়

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ব্যাংকে ঢুকেই খুশি হয়ে গেলাম। একটা কাউন্টারে লাইন নেই। মাত্র একজন দাঁড়িয়ে আছে। পাশের কাউন্টারগুলোতে বেশ ভিড়। একজনের পেছনে গিয়ে দাঁড়ালাম। লোকটা আমার দিকে হাসি দিয়ে তাকাল। অপরিচিত মানুষের হাসির বিপরীতে তার হাসির অর্ধেকের চেয়ে কম হাসি ফেরত দিতে হয়। আমিও দিলাম। লোকটা হাসি দীর্ঘায়িত করে বলল, ‘ভাইজান, আমার অ্যামাউন্টটা একটু বড়। দেরি হতে পারে। আপনি বরং ওই লাইনে দাঁড়াতে পারেন।’

অন্যগুলোতে বেশ ভিড়। যেতে ইচ্ছা করছে না। দেরি হলেও একজনের পেছনে দাঁড়ানোর একটা মানসিক প্রশান্তি আছে। আমি সেই মানসিক প্রশান্তির কথা ভেবে দাঁড়াতেই লোকটি অস্বস্তিতে পড়ে গেল। কিঞ্চিত অপমানিতও বোধ করতে লাগল। আবারও বলল, ‘ভাই, দেরি হতে পারে।’

আমি কী করব বুঝতে পারলাম না। তার অস্বস্তি বাড়াতে চাচ্ছি না। আবার বড় লাইনেও যেতে চাচ্ছি না। লোকটা এ বিষয়টা মেনে নিতে পারছে না। মানুষ যখন নিজেকে ধনী মনে করা শুরু করে, তখন আশপাশে একটা শৃঙ্খলা দেখতে চায়। যে শৃঙ্খলা তাকে কেন্দ্র করে থাকবে। তাকে গুরুত্ব দেবে বেশি। তেমনটা ঘটলে তার টাকা যেন সার্থকতা পায়। লোকটাও সেই শৃঙ্খলা দেখতে চাচ্ছে। হচ্ছে না। তার কাছে সব বিশৃঙ্খল লাগছে। আমি তার মানসিক শান্তির জন্য চলে গেলাম আরেক লাইনে। লোকটা বিশ্বজয়ী একটা হাসি দিল।

জানি না তার টাকার পরিমাণ কত, তবে হাসিটা তার চেয়ে বেশি অর্জনের।

কিছুক্ষণ পর আরেকজন এসে তার পেছনে দাঁড়াল। লোকটি একই ভঙ্গিতে তার দিকেও তাকাল। বলল, ‘ভাইজান। আমার অ্যামাউন্টটা একটু বড়।’

লোকটি বিরক্ত নিয়ে তাকাল, ‘কত বড়?’

তিরিশ লাখ।

তাতে সমস্যা কী?

সমস্যা নেই। দেরি হতে পারে। আপনি বরং ওই লাইনে দাঁড়াতে পারেন।

না, লাগবে না। আমার অ্যামাউন্ট আরো বড়। তেতাল্লিশ লাখ। এটা বলে একজনকে ইশারা করতেই সে ব্যাগ নিয়ে এসে পাশে দাঁড়াল। যার অর্থ, টাকা সব ব্যাগে আছে। এর মধ্যে কাউন্টার থেকে অফিসার সালাম দিয়ে আগুনে ঘি ঢেলে দিল। ত্রিশ লাখওয়ালা বিষয়টা মেনে নিতে পারছে না। তলোয়ারযুদ্ধ বা বন্দুকযুদ্ধে হেরে গেলে আফসোসটা গোপন থাকে। প্রকাশ্যে দেখা যায় না।

টাকার যুদ্ধে এমন হার প্রকাশ্যে দেখা যায় নানা সময়। প্রকাশ্যে যেকোনো হারের তীব্রতা বেশি। লোকটার চোখে-মুখে সেই তীব্রতা লক্ষণীয়। তেতাল্লিশ লাখওয়ালা বিষয়টাকে গুরুত্ব না দিয়ে তার সঙ্গীর সঙ্গে কথা বলতে লাগল। আর এক লাইনভর্তি মানুষ টাকার যুদ্ধের এমন দৃশ্য মন ভরে উপভোগ করছে। টাকাবিষয়ক যেকোনো কিছুই যেকোনোভাবে উপভোগ করা যায়। এটা সবচেয়ে বেশি উপভোগ করতে পারে যাদের টাকা তুলনামূলক কম বা টাকা নেই।

     ইশতিয়াক আহমেদ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা