kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

মনোভূমি

যেন সবটা জুড়ে আপনি আছেন

১৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাসনাহেনা ফুলের শুভেচ্ছা আর ভালোবাসা নেবেন। যত দূর জানি হাসনাহেনা নামটি আপনার প্রিয় নামগুলোর অন্যতম। ফুলের ক্ষেত্রেও কমতি নেই। এখনো মনে পড়ে সেদিনগুলোর কথা, যখন আপনাদের ছোট্ট ঘরটির সামনে একটি হাসনাহেনা ফুলের গাছ ছিল। আর রাত জেগে জেগে আপনি সে ফুলের ঘ্রাণ নিতেন। কখনো কখনো আমিও আপনার সঙ্গে ঘ্রাণ ভাগাভাগি করে নিতাম। আহা! সেই সোনালি দিনগুলো হয়তো আর ফিরে পাব না। আপনার সঙ্গে কাটানো প্রতিটি মুহূর্ত মিস করি। প্রায় সময় আপনি গাইতেন আর আমি কান পেতে শুনতাম। বেশি গাইতেন জেলগেটে বসে। একদিন গাইলেন ‘যা কিছু ভেবেছি এই জীবনে হাসনাহেনার কথায় প্রথম এই মনে’। সেদিনই বুঝলাম নামটি আপনার কত প্রিয়।

প্রতিবছর ডিসেম্বর মাসে আমাদের দেখা হলেও এবার ঘটেছে তার ব্যতিক্রম। অনেক চেষ্টার পরও যেতে পারিনি। এবার পুরো ডিসেম্বর কেটেছে বিষণ্নতায়। আমার হলের সামনে একটা হাসনাহেনা ফুলগাছ আছে। মন খারাপ হলে মাঝেমধ্যে ফুলগাছটির কাছে গিয়ে বসি। আর আপনার অনুপস্থিতিতে আপনার সঙ্গে কথা বলি। মনে হয় আপনার অনুপস্থিতিটাই যেন উপস্থিতির জানান দেয়। দূর থেকেও অনুভব করি আপনি আমার সঙ্গে কথা বলছেন। আমাকে সঠিক পরামর্শ ও সিদ্ধান্ত দিয়ে যাচ্ছেন। আমি সত্যিই ভাগ্যবান এই ভেবে যে, আপনার মতো একজন ভালো মনের অভিভাবক পেয়েছি। আমার প্রতি আপনার ভালোবাসা ও স্নেহ সব সময় অটুট থাকুক—এই প্রত্যাশা রেখে ইতি টানলাম। ভালো কাটুক আপনার প্রতিটি সময়।

রুদ্র

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা