kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

ভুল সবই ভুল

নিয়ানডার্থালরা বোকা ছিল

সবাই সত্যি জানে—এমন অনেক কথা পরে যাচাই করে দেখা গেছে সেগুলো মিথ্যা। লিখেছেন আসমা নুসরাত

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিয়ানডার্থালরা বোকা ছিল

নিয়ানডার্থাল ম্যান

১৮৬৪ সালে ভূতাত্ত্বিক উইলিয়াম কিং নিয়ানডার্থালদের পরিচয় দিতে গিয়ে বলেন, আমাদের পূর্বপুরুষদের (হোমোস্যাপিয়েন্স) নিকটাত্মীয় এই প্রজাতিটি বোকাই ছিল। তাই তারা হোমোস্যাপিয়েন্সদের কাছে হেরে গিয়ে বিলুপ্ত হয়ে যায়। তার পর থেকে বোকার সমার্থক শব্দ হিসেবে নিয়ানডার্থাল কথাটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। তিন লাখ ৫০ হাজার বছর আগে বরফ যুগে ইউরোপে তাদের আবির্ভাব, আর তারা টিকে ছিল ২৮ হাজার বছর আগ পর্যন্ত। হোমোস্যাপিয়েন্সদের তুলনায় নিয়ানডার্থালরা খাটো ছিল। তাদের ভ্রু মোটা ছিল, নাক ছিল প্রশস্ত। তারা শিকারি ছিল আর হোমোস্যাপিয়েন্সরা ছিল কৃষিজীবী; কিন্তু তারা বোকা ছিল না। বার্সেলোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হোয়াও জিলহাও বলছিলেন, খুলির আকার ধরে বুদ্ধি মাপার যে গতানুগতিক চিন্তাধারা, তারই শিকার হয়েছে নিয়ানডার্থালরা। অথচ তারা ইগলের নখর দিয়ে গলার হার বানাতে পারত। আগুনের ব্যবহার জানত। তারা কিছু আধ্যাত্মিক রীতি-নীতিও পালন করত। তারা পাথরের যেসব অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করত, তা হোমোস্যাপিয়েন্সদের তুলনায় কোনো অংশে কম কার্যকর ছিল না। উল্লেখ্য, হোমোস্যাপিয়েন্সরা আফ্রিকা থেকে ইউরোপে আসে ৪০ হাজার বছর আগে। ধারণা করা হয়, হোমোস্যাপিয়েন্সদের সঙ্গে না টিকতে পেরে নিয়ানডার্থালরা বিলুপ্ত হয়ে গেছে। তবে এই ধারণার সমর্থনে তথ্য-প্রমাণ হাজির করা যায়নি আজ পর্যন্ত। বিজ্ঞানীরা এটি নিশ্চিত হয়েছেন নিয়ানডার্থালরা বোকা ছিল না। হোমোস্যাপিয়েন্সদের সমান জ্ঞানবুদ্ধি তাদের ছিল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা