kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

ভুল সবই ভুল

ক্যাভিয়ার সব সময়ই বড়লোকের খাবার

সবাই সত্যি জানে—এমন অনেক কথা পরে যাচাই করে দেখা গেছে সেগুলো মিথ্যা। লিখেছেন আসমা নুসরাত

১৯ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্যাভিয়ার সব সময়ই বড়লোকের খাবার

ক্যাভিয়ার আসলে এক ধরনের সামুদ্রিক মাছের ডিম। এক কিলো ক্যাভিয়ারের দাম যখন ৩৫ হাজার ডলার, তখন তো লোকে ভাববেই এটা বড়লোকের খাবার। অথচ ১৯ শতকটাই আলাদা ছিল। আমেরিকার হোটেলগুলোতে তখন বিনা মূল্যে ক্যাভিয়ার দেওয়া হতো। ক্যাভিয়ারের সহজলভ্যতা ছিল বাদামের মতোই। সেকালের আমেরিকায় স্টার্জেন মিলত ঢের। উল্লেখ্য, এই মাছ থেকেই বেশি ক্যাভিয়ার পাওয়া যায়।

ক্যাভিয়ার ড্রিমস নামের এক প্রামাণ্যচিত্র তৈরি হওয়ার পর বিষয়টি আরো পরিষ্কার হয়েছে। ছবিটির পরিচালক ব্রায়ান গার্স্টেন পুলিত্জার বিজয়ী ইঙ্গা স্যাফরনের কাছ থেকে অনেক কথা শুনেছেন। ক্যাভিয়ার : দ্য স্ট্রেঞ্জ হিস্ট্রি অ্যান্ড আনসার্টেন ফিউচার অব দ্য ওয়ার্ল্ডস মোস্ট কভেটেড ডেলিকেসি নামের বই লিখেছেন ইঙ্গা। তিনি বলছেন, ডাইনোসরদের আমল থেকেই পৃথিবীতে ক্যাভিয়ার আছে আর গরিবরাই বেশি ক্যাভিয়ার খেত; কিন্তু যখন জানাজানি হতে থাকল যে একটি মেয়ে স্টার্জেন মাছের ক্যাভিয়ার তৈরির উপযোগী হতে আট বছর লাগে, তখন লোকে ভাবল এটি তো এক্সক্লুসিভ (বিশিষ্ট) ব্যাপার। অর্থনীতিবিদ আর্থার ফিশম্যান বলেছেন, ‘লোকে যখনই কোনো কিছুকে এক্সক্লুসিভ ভাবে, তখন তাকে আলাদা মূল্য দেয় আর তাতে জিনিসটির দাম বেড়ে যায়।’ সেভাবে ক্যাভিয়ারের দামও বাড়ল আর বাড়তে বাড়তে আকাশচুম্বী হলো। আর এটা ঘটল মাত্রই গত শতকের গোড়ায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা