kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

তিন বছর পর মঞ্চে ফিরছে জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত উৎসব

সম্মাননা পাচ্ছেন বাচিকশিল্পী আশরাফুল আলম ও কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘এই জীবনে ব্যথা যত এইখানে সব হবে গত’—প্রতিপাদ্যে তিন বছর পর মঞ্চে ফিরছে ঐতিহ্যবাহী জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত উৎসব। দুই দিনের এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে। আগামীকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় ৩৩তম জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত উৎসবের উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

গতকাল বুধবার রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও কণ্ঠশিল্পী পীযূষ বড়ুয়া।

বিজ্ঞাপন

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘শেষবার সরাসরি মঞ্চে এই উৎসব করেছি ২০১৯ সালে। ২০২০ সালে পারিনি করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে। ২০২১ সালে করেছি সীমিত পরিসরে অনলাইনে। ফলে এবারের উৎসবটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্ব্বপূর্ণ। ’

উৎসবের প্রথম দিন বাংলাদেশ রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সংস্থার পক্ষ থেকে এবার সম্মাননা দেওয়া হবে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক বাচিকশিল্পী আশরাফুল আলম ও কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলমকে।

শুক্রবার সকাল ১০টায় উৎসবের উদ্বোধন ও সম্মাননা প্রদান শেষে সকাল ১১টা থেকে হবে সংগীত পরিবেশনা। মাঝে বিরতি নিয়ে বিকেল ৫টা থেকে হবে আবৃত্তি ও সংগীতানুষ্ঠান। পরদিন শনিবার বিকেল ৫টা থেকে হবে আবৃত্তি ও সংগীতানুষ্ঠান।

এবারের উৎসবে সারা দেশ থেকে প্রায় ২০০ জন শিল্পী একক ও দলীয় পরিবেশনায় অংশ নেবেন। একক সংগীত পরিবেশন করবেন বুলবুল ইসলাম, ফাহিম হোসেন চৌধুরী, রোকাইয়া হাসিনা, অদিতি মহসিন, ডা. অরূপ রতন চৌধুরী, চঞ্চল খান, লিলি ইসলাম প্রমুখ। উদ্বোধনী পর্বে অংশ নেবে সুরতীর্থ, সংগীতভবন, বিশ্ববীণা, বুলবুল লতিকলা একাডেমি (বাফা) ও উত্তরায়ণ। জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হবে। এরপর থাকবে পর পর দুটি কোরাস। দুই দিনের অনুষ্ঠানে গানের পাশাপাশি আবৃত্তি পরিবেশনায় অংশ নেবেন বাচিকশিল্পী আশরাফুল আলম, জয়ন্ত রায়, বেলায়েত হোসেন, মাহমুদা আখতার ও রেজিনা ওয়ালী লীনা।



সাতদিনের সেরা