kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

‘গ্যাঞ্জাম পার্টি’র হোতাসহ দুজন গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘গ্যাঞ্জাম পার্টি’র হোতাসহ দুজন গ্রেপ্তার

দলটির কেউ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। কেউ বেকার। আবার কেউ ছোটখাটো কোনো কাজ করে। রাতে রাস্তার পাশে আট-দশজন মিলে আড্ডা দেয়।

বিজ্ঞাপন

সুযোগ বুঝে পথচারী, গাড়িচালক বা রিকশাচালকের সঙ্গে ঝগড়া বাধায়। একজন ঝগড়া শুরু করলে বাকিরা এগিয়ে আসে। প্রথমে ‘ধাক্কা দিলি ক্যান’ বলে টার্গেট ব্যক্তিদের হেনস্তা করে। এরপর তাদের টাকা-পয়সা, মোবাইল, ল্যাপটপ ছিনিয়ে পালিয়ে যায়। এই কৌশলে উত্তরায় দীর্ঘদিন ছিনতাই করছিল একটি চক্র। পুলিশ ও এলাকাবাসী এদের বলছে ‘গ্যাঞ্জাম পার্টি’।

গত মঙ্গলবার রাতে একটি অভিযোগের সূত্র ধরে এই দলের হোতাসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন আল রাজু (২৫) ও সুমন খান (২৯)। উত্তরার পশ্চিম থানার ১৩ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর সড়ক থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

দলটির প্রধান রাজু রাজধানীর তুরাগ থানার ভাবনারটেক এলাকার নুর আলমের ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। আর সুমন পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার রুস্তম আলী খানের ছেলে।

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ইচ্ছাকৃতভাবে ঝগড়া লাগিয়ে ছিনতাই করা হয় বলে স্থানীয়দের কাছে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা ‘গ্যাঞ্জাম পার্টি’ নামেই পরিচিত। এর আগে একই অভিযোগে দুটি মামলা আছে। গ্রেপ্তারও হয়েছে, জেল খেটেছে তারা। রাজুর আট-দশজনের একটি গ্রুপ আছে।

ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজু ও সুমন ঝগড়া লাগান লুত্ফুর রহমান নামের স্থানীয় এক ব্যক্তির সঙ্গে। লুত্ফুর রহমান তাঁর প্রাইভেট কার চালিয়ে আসছিলেন। হঠাৎই তাঁর গাড়ির সামনে এসে রাজু বলে ওঠেন, ‘আমাকে গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দিলি ক্যান?’ এ সময় তাঁরা মারধর করে টাকা, মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিতে চাইলে লুত্ফুর চিৎকার শুরু করেন। পুলিশের টহল টিম চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে যায় এবং দুজনকে আটক করে। স্থানীয়রা আগে থেকেই তাঁদের এই কৌশল জানত। তারাও পুলিশকে তথ্য দেয়। চক্রটির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

 



সাতদিনের সেরা