kalerkantho

শনিবার । ২৬ নভেম্বর ২০২২ । ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মুহিব উল্লাহর পরিবারের আরো ১৪ সদস্য ক্যাম্প ছেড়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে হত্যার শিকার রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিব উল্লাহর পরিবারের আরো ১৪ সদস্য কুতুপালং ট্রানজিট ক্যাম্প ছেড়েছে। জানা গেছে, কানডার উদ্দেশে রবিবার ক্যাম্প ছেড়ে ঢাকার দিকে রওনা হয় তারা। আগে তাঁর পরিবারের আরো ১১ জন কানাডায় যায়।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সরকারি কর্মকর্তা বলেন, ‘মুহিব উল্লাহর মাসহ তাঁর দুই ভাইয়ের পরিবারের ১৪ সদস্য কানাডার উদ্দেশে শিবির ত্যাগ করেছে।

বিজ্ঞাপন

রোহিঙ্গা শিবিরের সব প্রক্রিয়া শেষে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে ঢাকায়। তাদের সেখান থেকে কানাডার উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা। ট্রানজিট শিবির থেকে যাত্রাকালে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কার্যালয়, জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনারের প্রতিনিধিসহ পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগেও একই প্রক্রিয়ায় মুহিব উল্লাহ নিহত হওয়ার ছয় মাস পর তাঁর পরিবারের ১১ সদস্যকে কানাডায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। ’

রোহিঙ্গা শিবিরে কর্মরত ৮ এপিবিএনের এক কর্মকর্তা সাংবাদিকদের বলেন, ‘জাতিসংঘের মাধ্যমে মুহিব উল্লাহর মা ও দুই ভাইয়ের স্ত্রী-সন্তানসহ ১৪ জনকে উখিয়া ট্রানজিট পয়েন্ট থেকে ঢাকার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এরপর তাদের কোথায় নেওয়া হবে তার বিস্তারিত তথ্য আমার জানা নেই। ’

জানা গেছে, মুহিব উল্লাহর মা উম্মে ফজল (৬০) ছাড়াও পরিবারের সদস্য বয়সারা (১৩), হুনাইসা (৯), মো. আইমন (৮), ওরদা বিবি (৫), মো. আশরাফ (৫), শামছুন নাহার (৩৭), আসমা বিবি (৩৫), কায়কোবাদ (১৫), হামদাল্লাহ (১১), হান্নানা বিবি (৯), আফসার উদ্দীন (৭), সোহানা বিবি (৫) ও মেজবাহ উল্লাহ (০১) ক্যাম্প ছেড়ে যায়।

এ বিষয়ে উখিয়া ট্রানজিট শিবিরের রোহিঙ্গা মো. ইউছুপ জানান, মুহিব উল্লাহর পরিবারের ১৪ সদস্যকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে কানাডার উদ্দেশে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ সময় পুলিশসহ জাতিসংঘের সংস্থার লোকজনও ছিল।



সাতদিনের সেরা