kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিশিষ্টজনদের বিবৃতি

পর্যটক রামনাথের বাড়ি পুনরুদ্ধারের দাবি

বাড়িটি পুনরুদ্ধারের পর সেখানে ভ্রমণবিষয়ক বইয়ের একটি বিশেষায়িত পাঠাগার ও বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি

বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পর্যটক রামনাথের বাড়ি পুনরুদ্ধারের দাবি

বানিয়াচংয়ে রামনাথের বসতভিটা

হবিগঞ্জের বানিচংয়ে পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের দখল হয়ে যাওয়া বসতভিটা পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণের দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন দেশের ১০০ জন বিশিষ্ট নাগরিক। লেখক, সাংবাদিক, সংস্কৃতিকর্মীদের নিয়ে ওই বসতবাড়ি পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণে গঠন করা হয়েছে কমিটি।

বিবৃতিতে বলা হয়, বাইসাইকেল নিয়ে ঘুরে বেড়ানো পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের জন্ম বানিয়াচংয়ে। ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর তিনি বসতভিটা ছেড়ে কলকাতায় যান।

বিজ্ঞাপন

উদার ও অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী রামনাথের নামে কলকাতায় সড়ক থাকলেও দেশে বেদখল হয়ে গেছে তাঁর বসতভিটা। ওই বাড়িটি এখন আবদুল ওয়াহেদ মিয়ার দখলে আছে। তিনি একসময় জামায়াত-বিএনপি করে যোগ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগে। যোগ দিয়ে রীতিমতো ওয়ার্ড কমিটির সভাপতির পদও বাগিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু গত ১১ সেপ্টেম্বর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সাংবাদিক রাজীব নূরসহ চার সাংবাদিক তাঁর হাতে নিগৃহীত হলে ওয়াহেদকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। তবে বাড়ি এখনো ওয়াহেদের দখলেই আছে। ওই বাড়ির প্রায় পাঁচ একর জমির সবটুকুই এখন সরকারি খাস খতিয়ানে। প্রকৃতপক্ষে সরকারই এ জমির মালিক।

ওই বসতভিটা পুনরুদ্ধারে আগামীকাল মঙ্গলবার বিশ্ব পর্যটন দিবসে হবিগঞ্জ থেকে সাইকেল চালিয়ে বিদ্যাভূষণ পাড়ায় যাবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিটি। ওই কমিটি পর্যটন দিবসের প্রতীকী কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রামনাথের বাড়িটি পুনরুদ্ধারের পর সেখানে ভ্রমণবিষয়ক বইয়ের একটি বিশেষায়িত পাঠাগার ও বাইসাইকেল মিউজিয়াম গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে।

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউটের সাম্মানিক সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, কথাসাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দীন ইউসুফ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা