kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পদক্ষেপ নিতে হবে

নিউ ইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী

বাসস, নিউ ইয়র্ক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে পদক্ষেপ নিতে হবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আয়োজিত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এ সময় বাইডেনের স্ত্রী জিল বাইডেন উপস্থিত ছিলেন। ছবি : পিএমও

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টেকসই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মনোযোগ ধীরে ধীরে মিয়ানমারের নতুন বৈশ্বিক ও অভ্যন্তরীণ সংঘাতের দিকে সরে যাওয়ায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে তিনি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি জাতিসংঘ ও বিশ্বসম্প্রদায়ের প্রতি রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমিতে টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী গতকাল বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গা ইস্যুতে এক ইভেন্টে ভাষণ দেওয়ার সময় বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক অংশীদারদের একটি অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে বাস্তব পদক্ষেপ ও প্রকল্প গ্রহণ করা দরকার।

বিজ্ঞাপন

প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানের জন্য আন্তর্জাতিক আইন প্রয়োগ এবং মিয়ানমারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) ও আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) গাম্বিয়াকে সমর্থন করার আহ্বান জানান। এ ছাড়া রোহিঙ্গাদের রাজনৈতিক ও আর্থিকভাবে সমর্থন করার জন্য বিশ্বসম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এএমআর ঠেকাতে পদক্ষেপ নিতে হবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি বড় ধরনের সংকটে পরিণত হওয়ার আগেই অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স (এএমআর) ঠেকাতে টেকসই রাজনৈতিক সদিচ্ছা ও পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি বলেন, ‘এএমআর এমন একটি সমস্যা, যা সংকটে রূপ নিতে পারে। এর কারণে বিশ্বব্যাপী লাখ লাখ প্রাণহানি হতে পারে। এটি প্রতিরোধে আমদের টেকসই রাজনৈতিক সদিচ্ছা ও পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। ’ নিউ ইয়র্কে গতকাল এএমআর বিষয়ে বৈঠকের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বাইডেনের সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার সন্ধ্যায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আয়োজিত অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিতে নিউ ইয়র্কে আসা রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানদের সম্মানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও তাঁর স্ত্রী আমেরিকান মিউজিয়াম অব ন্যাচারাল হিস্টোরিতে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

এখানে হোটেল লটেতে প্রেস ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাইডেন ও তাঁর স্ত্রী অনুষ্ঠানে তাঁকে (শেখ হাসিনা) উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। ’

তিনি বলেন, এ সময় উভয় নেতা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরের জন্য বাইডেনকে আমন্ত্রণ জানান।

পদ্মা সেতু নিয়ে প্রদর্শনী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সদর দপ্তরে পদ্মা সেতুর ওপর আলোকচিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেসসচিব কে এম সাখাওয়াত মুন জানান, বুধবার জাতিসংঘ সদর দপ্তরের লেভেল-১-এ আয়োজিত প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় জাতিসংঘের ইকোসক প্রেসিডেন্ট লাচেজারা স্টোভাসহ কয়েকজন বিদেশি অতিথি উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী অতিথিদের উদ্দেশে বলেন, ‘আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করেছি। কারণ এটি নির্মাণ করা আমাদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ এনে আমাদের দোষারোপ করার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু পরে প্রমাণিত হয়েছে যে কোনো দুর্নীতি হয়নি। ’

১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া এই প্রদর্শনী ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

 

 



সাতদিনের সেরা