kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ব্যালটে কারচুপি হলে মামলা করেও কেউ জয়ী হতে পারবেন না

৩৯ নাগরিকের আহ্বানের জবাবে সিইসি

বিশেষ প্রতিনিধি   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ব্যালটে কারচুপি হলে মামলা করেও কেউ জয়ী হতে পারবেন না

কাজী হাবিবুল আউয়াল

‘ব্যালট পেপারে নির্বাচন হলেও যদি কারচুপি হয়, কেউ মামলা করে জয়ী হয়ে সংসদে আসতে পারবেন না। গত ৫০ বছরে এমনটি দেখিনি। ’ আগামী সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করতে ৩৯ বিশিষ্ট নাগরিকের আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল গতকাল এ কথা বলেন। তিনি যোগ করেন, ইভিএমে ‘ভোটার ভেরিফায়েড পেপার অডিট ট্রেইল’ (ভিভিপিএটি) রাখার কথা বলা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতে এটা আছে, এতে কে কাকে ভোট দিল জানা যায়। কিন্তু নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর ভিভিপিএটি পরীক্ষা করে কেউ এমপি হতে পেরেছেন এমন কোনো নজির নেই।

নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সিইসি বলেন, ‘আমাদের দেশে গত ৫০ বছরে ব্যালটে ভোট হয়েছে। এই দীর্ঘ সময়ে আদালতে মামলা করে ভোট পুনর্গণনার পর সংসদে কেউ আসতে পেরেছেন এই তথ্য কি আছে? যদি না থাকে তাহলে এই একটা জিনিস (ইভিএম) নিয়ে আপনারা এত উঠেপড়ে লাগলেন কেন? নির্বাচনটা সুষ্ঠুভাবে করাটাই বড় কথা। ’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা যদি ইভিএম তুলে দিই, আর যদি কারচুপি হয়, আমি নিশ্চিতভাবেই বলতে পারি কেউ পরাজিত হয়ে মামলা করেন, ভোট পুনর্গণনা করে জয়ী হয়ে সংসদে আসতে পারবেন না। এটা গ্রাউন্ড রিয়ালিটি। আমরা এটাকে আমলে নিয়েছি। ’

সিইসি বলেন, ‘ভারত কিন্তু আমাদের মতো ইভিএমে বায়োমেট্রিক দিতে পারেনি। ইউরোপের কথা বলা হচ্ছে। আমি জানি না ইউরোপে কী জন্য তুলে দিয়েছে ইভিএম। তবে ওদের যদি হাত তুলে ভোট দিতে বলেন, ওরা ভদ্রভাবে হাত তুলে ভোট দিয়ে চলে আসবে। নির্বাচন নিয়ে ওখানে কারচুপি হয় না। ওদের ওখানে কোনো মেশিন বসাতে হয় না। কারণ ওদের ওখানে সভ্যতা ও নিয়মতান্ত্রিকতা এমন একটা পর্যায়ে এসেছে যে ইভিএম কি, আর ব্যালট হলেই বা কি। ’

সিইসি বলেন, ‘(নাগরিকরা) যে কথা বলেছেন তা বহুবার বলা হয়েছে। জাফর ইকবাল বলেছিলেন এটা খুব জটিল মেশিন নয়। ওই হিসেবে অনেকেই বলছেন যে এটা দুর্বল যন্ত্র। যন্ত্র দুর্বল কি সবল, এটা আমার বিবেচনা করার বিষয় নয়। যন্ত্র কাজ করছে কি না—এটাই আসল বিষয়। আমরা হাজার হাজার নির্বাচন করেছি। হাজার হাজার ইভিএম ব্যবহার করেছি কয়েক বছর ধরে। কোথাও আমাদের যন্ত্র ম্যালফাংশন করেছে, এমনটি ঘটেনি। ’

সিইসি বলেন, ‘আমরা দৃঢ়ভাবে বলতে চাচ্ছি, ইভিএমে ডিজিটাল জালিয়াতি সম্ভব নয়। আমাদেরই প্রমাণ করতে হবে যে ডিজিটালি জালিয়াতি সম্ভব নয়, এটা কিন্তু আইনগত ভাষা নয়। ’

সিইসি বলেন, ‘ইভিএমে কারচুপি ও সহিংসতা নিঃসন্দেহে কমে যাবে। আমরা স্টাডি করেছি, ইভিএমে আমার ভোট আপনি, আপনার ভোট আমি দিতে পারব না। ’

 



সাতদিনের সেরা