kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ুর প্রভাব

বিশ্বের লাখো মানুষ ক্ষুধা ও অপুষ্টির ঝুঁকিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জলবায়ু পরিবর্তনসহ নানা কারণেই বাংলাদেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বাড়ছে। প্রতিবছরই বন্যা, ঘূর্ণিঝড়সহ নানা ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। তবে ১২২ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বন্যা বিবেচনা করা হচ্ছে ২০১৭ সালের বন্যাকে। জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব বিশ্বের লাখ লাখ মানুষকে ক্ষুধা ও অপুষ্টির ঝুঁকিতে ফেলেছে।

বিজ্ঞাপন

আন্তর্জাতিক খাদ্যনীতি ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইএফপিআরআই) প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

‘গ্লোবাল ফুড পলিসি রিপোর্ট-২০২২ : ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ফুড সিস্টেম’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষিসচিব মো. সায়েদুল ইসলাম।

প্রতিবেদনে বিভিন্ন সূচকে বাংলাদেশের বিভিন্ন মানদণ্ড তুলে ধরা হয়েছে। সেখানে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবকে বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বিবেচনায় নিলে আগামী ২০৩০ সালে বাংলাদেশের প্রায় এক কোটি ৪৮ লাখ মানুষ ক্ষুধার ঝুঁকিতে থাকবে। অন্যদিকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বিবেচনায় না নিলে এই সংখ্যা দাঁড়াবে এক কোটি ১৩ লাখ। ফলে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ক্ষুধার্ত মানুষের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তন বৈশ্বিক খাদ্য ব্যবস্থার জন্য ক্রমবর্ধমান হুমকিস্বরূপ, যার প্রভাব ক্রমেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। তাপমাত্রা বৃদ্ধি, বৃষ্টিপাতের ধরন পরিবর্তন করা, চরম মাত্রায় খারাপ আবহাওয়া বিপর্যয় এবং অন্যান্য প্রভাব এরই মধ্যে কৃষি ফলন হ্রাস ও খাদ্য সরবরাহ শৃঙ্খল ভেঙে দিয়েছে, যার প্রভাবে লাখ লাখ মানুষকে ক্ষুধা ও অপুষ্টির ঝুঁকিতে ফেলেছে।



সাতদিনের সেরা