kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কিশোরীকে মারধর ও বিয়ের ঘটনায় মামলা

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

১৫ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



গাজীপুরের কালিয়াকৈরের শিমুলিয়া গ্রামে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক কিশোরীকে নির্মমভাবে মারধর করে বিয়ে দেওয়ার ঘটনায় ফুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) মেম্বার জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল রবিবার বিকেলে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা বাদী হয়ে মামলাটি করেন। পলাতক ওই ইউপি সদস্যকে গ্রেপ্তারে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে।

জানা যায়, গত ২৬ মে বিকেলে জাহাঙ্গীর তাদের বাড়িতে গিয়ে অসামাজিক কাজের মিথ্যা অভিযোগ তুলে অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে চুলের মুঠো ধরে বেধড়ক মারধর করে।

বিজ্ঞাপন

পরে তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসা এক যুবকের সঙ্গে জোরপূর্বক বিয়ে দেন। মারধরের দৃশ্যটি কেউ গোপনে ভিডিও ধারণ করেন, যা আড়াই মাস পর বৃহস্পতিবার ভাইরাল হয়।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আকবর আলী খান বলেন, ‘এ ঘটনায় বিকেলে কিশোরীর মা বাদী হয়ে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি রুজু করে ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেপ্তারের জন্য মাঠে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। দ্রুতই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হবে। ’

 

 



সাতদিনের সেরা