kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্যাখ্যা

সত্যিকার অর্থে বলিনি কথার কথা বলেছি

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৫ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সত্যিকার অর্থে বলিনি কথার কথা বলেছি

আব্দুল মোমেন

“আমি তো ‘ট্রু সেন্স অব’ বেহেশত (সত্যিকার অর্থে বেহেশত) বলি নাই, কথার কথা বলেছি”—বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে গতকাল রবিবার এ কথা বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। গত শুক্রবার সিলেটে অন্য দেশগুলোর সঙ্গে পরিস্থিতি তুলনা করতে গিয়ে বাংলাদেশের পরিস্থিতিকে ‘বেহেশত’ বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা-সমালোচনা হয়। গতকাল ঢাকায় জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাশলেতের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাঁকে তাঁর দল (আওয়ামী লীগ) থেকে ভালো কথা বলতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আগামী দিনে তিনিও সাবধানে থাকবেন।

হাইকমিশনার মিশেল বাশলেতের সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চান সাংবাদিকরা। জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেটে তাঁর বেহেশত বলার প্রসঙ্গ টানেন। তিনি বলেন, ‘গত পরশু একজন আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থা কেমন। আমি বলেছি, আমরা তো ভালো করছি। কভিডের সময়ে গত বছর ৬.৯৪ ছিল জিডিপি প্রবৃদ্ধি। এখন আমাদের মুদ্রাস্ফীতি (দ্রব্যমূল্য) অনেক বেড়েছে। সরকার সহনীয় পর্যায়ে রাখার চেষ্টা করছে। ’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি, কেমনে ভালো রাখা যায়। এনার্জির (জ্বালানি) সমস্যা। আমরা সাশ্রয়ী একটা পন্থা নিয়েছি, তাতে দাম বেড়েছে। দাম বেড়েছে আমাদের ৭ শতাংশ, আর আমেরিকায় বেড়েছে ৯ শতাংশ। তুরস্কে অনেক বেড়েছে। পাকিস্তানে বেড়েছে ৩৭ শতাংশ, প্রতিবেশী মিয়ানমারে বেড়েছে শুনছি ১৫০ শতাংশ। আপনাদের (সাংবাদিকদের) তরফ থেকেই এসব শুনেছি। ’

মোমেন বলেন, ‘সেদিক থেকে আমরা তো অনেক ভালো আছি। তা ছাড়া আফগানিস্তানে যখন তখন মসজিদে মানুষ মেরে ফেলা হচ্ছে। কোনো কোনো দেশে শপিং মলে যায়, স্কুলে যায়, সেখানে মেরে ফেলে। আমরা তো এমন বাজে অবস্থায় নাই। তাই আমরা অন্যদের থেকে অনেক ভালো আছি। অন্যদের থেকে অনেক ভালো আছি। অনেকটা বলতে পারেন যে বেহেশতে আছি। ’

মন্ত্রী তাঁর সেই বক্তব্যের প্রসঙ্গে বলেন, “আর যায় কোথায়! আমি তো ‘ট্রু সেন্স অব’ বেহেশত বলি নাই। কথার কথা বলেছি। কিন্তু আপনারা (সাংবাদিকরা) সবাই মিলে আমাকে ধরলেন। আপনারা আমাকে খেয়ে ফেললেন। ”

 



সাতদিনের সেরা