kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১০ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৮ সফর ১৪৪৪

জ্বালানি তেলসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি

হরতালসহ কঠোর কর্মসূচি দিতে যাচ্ছে বাম দলগুলো

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জ্বালানি তেল, সারসহ অন্যান্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে হরতাল-অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচি দিতে যাচ্ছে বাম গণতান্ত্রিক জোটসহ দেশের বামপন্থী দলগুলো।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, আন্দোলন কর্মসূচি নিয়ে সর্বশেষ ৯ আগস্ট সিপিবির কার্যালয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে ৯ বাম দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে বর্তমান শাসনামলকে ফ্যাসিবাদী দুঃশাসনের সঙ্গে তুলনা করা হয়। এর অবসানে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জ্বালানি তেল, সারসহ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ও জনজীবনের সংকট দূর করতে যুগপৎ আন্দোলন গড়ে তোলায় ঐকমত্য পোষণ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বৈঠকে শাহবাগে ছাত্র-মিছিলে পুলিশ ও সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলার নিন্দা ও ছাত্রনেতাদের বিরুদ্ধে করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয় এবং হামলাকারী পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের বিচার দাবি করা হয়।

সম্প্রতি বাস ডাকাতি, বাসসহ বিভিন্ন এলাকায় দলবদ্ধ নারী ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদর অবিলম্বে প্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

এর আগে ৮ আগস্ট বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সভায় একই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হয়। সভায় জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়। ওই সময়ের মধ্যে বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার না হলে ১৭ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অভিমুখে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই দিন জেলায় জেলায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বাম জোট ও ৯ বাম দলের যৌথ সভা থেকেও ওই কর্মসূচির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার কালের কণ্ঠকে বলেন, বাম জোট ও ৯ বাম দলের যৌথ সভায় জ্বালানি তেল, সারসহ নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং পুলিশ ও সন্ত্রাসী পেটোয়া বাহিনীর হামলা নিয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় বাম নেতারা মত প্রকাশ করেন, বর্তমান সরকার ফ্যাসিবাদী দুঃশাসন দীর্ঘায়িত করতে চাইছে। এর বিরুদ্ধে শ্রমিক-কৃষক-নিপীড়িত জাতিসত্তা ও জনগণের বিকল্প শক্তি সমাবেশ গড়ে তুলতে হবে। ওই সভায় হরতাল কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে ৯ বাম দলের সমন্বয়ক জাফর আহমেদ জানান, জ্বালানি তেল, পরিবহন ভাড়া, ইউরিয়া সারসহ নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এবং লোড শেডিং বন্ধ, বিদ্যুৎসহ অন্যান্য খাতে চুরি-দুর্নীতির বিচার, বিদেশে পাচারকৃত টাকা ফেরত আনা ও পাচারের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের দাবিতে আন্দোলন চলছে। আন্দোলন জোরদারে হরতালসহ নতুন কর্মসূচি দেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা