kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১১ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৯ সফর ১৪৪৪

‘ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামি কিভাবে শিক্ষকতা করেন’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে স্কুলে দুই শিক্ষার্থীকে বর্বরভাবে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে মহিলা পরিষদ ওই ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে। শিক্ষার্থী ধর্ষণ এবং একটি হত্যা মামলার আসামি কিভাবে স্কুলে শিক্ষকতা করেন, সে বিষয়ে গভীর বিস্ময় প্রকাশ করে মহিলা পরিষদ বলেছে, ‘এ ধরনের ঘটনা দেশের সুশাসনকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। আমরা জানি, ২০১১ সালে মহামান্য হাইকোর্ট শিশুদের শারীরিক শাস্তি দেওয়ার বিষয়টি বেআইনি ও অসাংবিধানিক ঘোষণা করেন এবং এর পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্দেশনা অনুযায়ী শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে একটি পরিপত্রও জারি করে।

বিজ্ঞাপন

’ বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে স্থানীয়ভাবে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনোভাবেই যাতে কোনো অপরাধী নিয়োগ না পায়, তা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে। মহিলা পরিষদ শিশুদের শারীরিক শাস্তি নিষিদ্ধ সংক্রান্ত হাইকোর্টের রায়ের বাস্তবায়ন পর্যবেক্ষণ করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতি দাবি জানিয়েছে।

 

 

 



সাতদিনের সেরা