kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১১ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৯ সফর ১৪৪৪

কোরবানির পশুর চামড়া

ভালো দাম পাওয়ার আশা চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের

মুস্তফা নঈম, চট্টগ্রাম   

৫ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসন্ন ঈদে কোরবানির পশুর কাঁচা চামড়ার ‘ভালো ব্যবসা’ হবে বলে আশা করছেন চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা। তাঁদের আশাবাদী করেছে বিশ্ববাজারে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের বাড়তি চাহিদা। যদিও চামড়ার জন্য ব্যবহৃত রাসায়নিক দ্রব্য ও লবণের দাম বেড়ে যাওয়ায় চামড়া প্রক্রিয়াকরণের বাড়তি খরচ নিয়ে চিন্তিত সংশ্লিষ্টরা।

চট্টগ্রামের কাঁচা চামড়া ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিবছর কোরবানির ঈদে চট্টগ্রামে সাড়ে তিন থেকে চার লাখ চামড়া সংগ্রহ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে ৬৪.৮৩ শতাংশ গরুর, ৩১.৮২ শতাংশ ছাগলের ও ২.২৫ শতাংশ মহিষের চামড়া। অল্পসংখ্যক ভেড়ার চামড়াও রয়েছে।

বৃহত্তর চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ মুসলিম উদ্দিন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বিশ্ববাজারে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের চাহিদা বেড়েছে। এতে রপ্তানি আয় বেড়েছে। ফলে এবার কোরবানির ঈদে কাঁচা চামড়ার ভালো দাম পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ’ তিনি বলেন, ‘গত দুই বছর মাঠ পর্যায়ে কাঁচা চামড়ার বাজারে ধস নেমেছিল। ব্যবসায় লোকসান দিয়ে আমাদের সমিতির ১১২ সদস্যের অনেকে ব্যবসা থেকে সরে গেছেন। ’

কাঁচা চামড়া আড়তদার সমিতির নেতা মুসলিম উদ্দিন জানান, ছয় মাস আগে ৭৪ কেজির এক বস্তা লবণের দাম ছিল ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকা। বর্তমানে একই লবণ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার থেকে এক হাজার ১০০ টাকা। আর কিছু রাসায়নিক দ্রব্যের দামও বেড়েছে। এতে কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে খরচ বেড়ে যাবে। ২০ থেকে ২৫ বর্গফুটের একটি কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে আট থেকে ১০ কেজি লবণ লাগে। সঙ্গে শ্রমিক খরচ ৮০ থেকে ৯০ টাকা। প্রতিটি চামড়ার পেছনে খরচ হয় ২০০ থেকে ২২০ টাকা। এ ছাড়া করোনার সময়ে আড়তে কাজ না থাকায় অনেক শ্রমিক পেশা পরিবর্তন করেছেন। অভিজ্ঞ শ্রমিক না পেলে কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াকরণে সমস্যা হবে।  

গত দুই বছরে ব্যবসা পরিস্থিতি নিয়ে চট্টগ্রামের সর্বাধুনিক চামড়া প্রক্রিয়াকরণ কারখানা ‘রিফ লেদার’ এর পরিচালক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের চাহিদা বেড়েছে। দেশের বাজারেও দাম ঊর্ধ্বমুখী। চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য বেশ আশানুরূপ রপ্তানি হয়েছে। আমাদের ব্যবসাও ভালো হচ্ছে। ’ তিনি বলেন, ‘আসন্ন কোরবানির ঈদে কাঁচা চামড়ার ব্যবসা কেমন হবে, তা এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে সুখবরের আশায় আছি। ’

 

 

 



সাতদিনের সেরা