kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

১০ মাসেও টাকা ফেরত পাননি গ্রাহকরা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৩ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১০ মাসেও টাকা ফেরত পাননি গ্রাহকরা

রাজবাড়ীর ২০ হাজার গ্রাহকের প্রায় ৬০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান জেকা বাজারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার পর ১০ মাসেও গ্রাহকরা পাননি বিনিয়োগের অর্থ। এ কারণে মানবেতর জীবন যাপন করছেন গ্রহকরা।

প্রতারিত গ্রাহক আবু আখের, মকলেছুর রহমান আপন, ওমর ফারুক, হাবিবুর রহমান রনি, ইসহাক শেখের ভাষ্য মতে, কম টাকায় মোটরসাইকেল, প্রসাধনসামগ্রীসহ নানা প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয় জেকা বাজার।

বিজ্ঞাপন

প্রতিষ্ঠানটির মালিক জাবিউল্লাহ খান জাবের রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার গঙ্গানন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি জেলার প্রায় ২০ হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে ৬০-৭০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এসব টাকা দিয়ে পরিবারের বিভিন্ন সদস্যের নামে ঢাকা, রাজবাড়ী শহর, কালুখালীতে জমি, ফ্ল্যাট কিনেছেন তিনি। গ্রাহকদের টাকা ফেরত না দিয়ে বিভিন্নভাবে হুমকি দেওয়াসহ টালবাহানা করছেন। এই পরিস্থিতিতে টিম লিডাররা গ্রাহকদের চাপের মুখে রয়েছেন।

ভুক্তভোগী গ্রাহকরা আরো অভিযোগ করেন, জেকা বাজারের মালিক জাবিউল্লাহ খান জাবের জয়েন্ট স্টক কম্পানি থেকে ২০২১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর ঢাকা ডেল লিমিটেড (রেজি. নং-সি-১৭৪২৪৫) নামক আরেকটি নতুন কম্পানি খুলেছেন।

ভুক্তভোগী গ্রাহক সূত্রে জানা গেছে, জাবিউল্লাহ খান জাবের, তার বাবা শুকুর আলী শেখ, মা মমতা বেগম, বোন রোকেয়া খাতুন এবং বালিয়াকান্দি উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের আনিসুর রহমান, পাবনার সুজানগর উপজেলার মুরালিপুর গ্রামের সাইদুল বাশার, কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া গ্রামের শাহ ফিরোজ আহমেদ মিলে জেকা বাজার লিমিটেড (রেজি. নং সি-১৬৯৬৭৩) নামে এমএলএম কম্পানি খুলে বসেন।

তাঁরা ভুক্তভোগী মকলেছুর রহমান আপন ও তাঁর টিমের সদস্যদের ৫০ লাখ টাকা, যুবায়েরের ও তাঁর টিমের সদস্যদের ৭০ লাখ টাকা, হাবিবুর রহমান রনি ও তাঁর টিমের সদস্যদের এক কোটি ২০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে ওই টিম লিডারদের দাবি। তাঁরা জেকা বাজারের মালিক জাবিউল্লাহকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

গত বছরের ২ নভেম্বর প্রতারণার অভিযোগে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিপ্তরের কর্মকর্তারা রাজবাড়ীতে জেকা বাজারের কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। বর্তমানে রাজবাড়ী জেকা বাজারের সব কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এর পর থেকে জেকা বাজারের মালিক পলাতক রয়েছেন।

 



সাতদিনের সেরা