kalerkantho

শুক্রবার । ১২ আগস্ট ২০২২ । ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৩ মহররম ১৪৪৪

ধর্ষণের বিচার চাওয়া কিশোরীর আপিল শুনবেন হাইকোর্ট

অব্যাহতি পাওয়া আসামি মো. আকতারুজ্জামানকে চার সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিচার চেয়ে হাইকোর্টে আসা ধর্ষণের শিকার নীলফামারীর এক কিশোরীর আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলা থেকে অব্যাহতি পাওয়া একমাত্র আসামি মো. আকতারুজ্জামানকে চার সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ১৭ মে নীলফামারীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১-এর অব্যাহতির আদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে গতকাল বুধবার এই আদেশ দেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি শাহেদ নূরউদ্দিনের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

আদালতে কিশোরীর পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড প্যানেলের আইনজীবী বদরুন নাহার।

বিজ্ঞাপন

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পী।

ধর্ষণের শিকার হয়েছে দাবি করে গত ১৫ জুন সরাসরি হাইকোর্টের বিচারকক্ষে এসে বিচার চায় নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার এক কিশোরী। ওই দিন আদালত বিচারকাজে বসতেই এক মহিলাকে নিয়ে ডায়াসের (আইনজীবীরা যেখানে দাঁড়িয়ে মামলার শুনানি করেন) সামনে দাঁড়িয়ে যায় ওই কিশোরী। তখন আদালত কিশোরীর পরিচয় ও উদ্দেশ্য জানতে চাইলে কিশোরী নিজের নাম বলে সঙ্গে থাকা মহিলাকে নিজের মা বলে পরিচয় করিয়ে দেয়।

বিচারকক্ষে এসে দাঁড়ানোর কারণ জানতে চাইলে কিশোরী বলে, ‘আমার বয়স ১৫ বছর। আমি ধর্ষণের শিকার। একজন বিজিবি সদস্য আমাকে ধর্ষণ করেছে। কিন্তু নীলফামারীর আদালত (নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল) তাকে খালাস (অব্যাহতি) দিয়েছেন। আমরা গরিব মানুষ, আমাদের টাকা-পয়সা নেই। আমরা আপনার কাছে বিচার চাই। ’ এ সময় আদালত কিশোরীর কাছে অভিযোগসংক্রান্ত কোনো কাগজপত্র আছে কি না জানতে চাইলে কিশোরী মামলার এজাহার আছে বলে জানায়।

তখন আদালত সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইডের আইনজীবী বদরুন নাহারকে মামলাটি দেখার দায়িত্ব দেন। দায়িত্ব পাওয়ার পর মামলা থেকে আসামিকে অব্যাহতি, মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বাদীর নারাজির আবেদন খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে গত রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আপিল করা হয় বলে জানান আইনজীবী বদরুন নাহার।

আইনজীবী বদরুন নাহারের কাছ থেকে পাওয়া মামলার বিবরণে জানা যায়, নীলফামারীর সৈয়দপুরের লক্ষ্মণপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে বিজিবি সদস্য আকতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের ২১ নভেম্বর ধর্ষণের মামলা করেন ভুক্তভোগী কিশোরীর মা। মামলাটি তদন্তের পর গত বছর ৩১ ডিসেম্বর চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় পুলিশ। পরে চলতি বছরের ১৭ মে আসামি আকতারুজ্জামানকে অব্যাহতি দেন নীলফামারীর আদালত।

 



সাতদিনের সেরা