kalerkantho

শনিবার । ২০ আগস্ট ২০২২ । ৫ ভাদ্র ১৪২৯ । ২১ মহররম ১৪৪৪

স্বেচ্ছাসেবক পার্টির নেতাকে ছুরিকাঘাত

বাধা দিতে গেলে আবুল হাসনাত আজাদকে বহনকারী রিকশাচালককেও ছুরিকাঘাত করা হয়

সাভার প্রতিনিধি   

২৭ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আশুলিয়ার দক্ষিণ গাজিরচট এলাকার শেরআলী মার্কেট মোড়ে গত শনিবার দিবাগত রাতে জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা জেলার সভাপতি আবুল হাসনাত আজাদকে ছুরিকাঘাত করেছেন বাবুল নামের এক যুবক। বাধা দিতে গেলে হাসনাতকে বহনকারী রিকশাচালককেও ছুরিকাঘাত করা হয়।

সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, রাত আড়াইটার দিকে রিকশায় চড়ে যাচ্ছিলেন হাসনাত। রাস্তা আটকে রাখায় বাগবিতণ্ডার জেরে এক যুবককে চড় দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

পরে ওই যুবক তাঁকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করতে থাকেন। দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে তাঁকে ধাওয়া করেন ওই যুবক।

আহত রিকশাচালক মনির হোসেন জানান, রাত আড়াইটার দিকে হাসনাত তাঁর রিকশায় চড়েন। শেরআলী মার্কেট এলাকায় আগে থেকেই দুই যুবক রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তিনি হর্ন বাজালে রাস্তা না ছেড়ে গালাগাল করতে থাকেন তাঁরা। এ সময় এক যুবকের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন হাসনাত। পরে ওই যুবককে চড় দেন হাসনাত। সঙ্গে সঙ্গে ওই যুবক হাসনাতকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করতে থাকেন। বাধা দিলে তাঁকেও ছুরিকাঘাত করা হয়।

আহতের ভাই মহসীন বলেন, হাসনাতকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে রাজধানীর গ্রিন লাইফ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর শরীরে ছুরিকাঘাতের সাতটি গভীর ক্ষত রয়েছে।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক মাসুদ আল মামুন বলেন, সিসিটিভির ফুটেজ দেখে হামলাকারী বাবুলকে শনাক্ত করা হয়েছে। এই বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

 

 



সাতদিনের সেরা