kalerkantho

বুধবার । ২৯ জুন ২০২২ । ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৮ জিলকদ ১৪৪৩

বন্যাদুর্গতদের জন্য সহায়তার হাত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিলেট, সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জে বন্যাদুর্গতদের জন্য সহায়তার হাত বাড়িয়েছে অনেকে। তারা বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেছে এবং তাদের জন্য আর্থিক সহায়তা দিয়েছে।

চীনের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ : হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বন্যাদুর্গত রত্না ও প্রজাতপুর গ্রামে গতকাল বৃহস্পতিবার চাল, আলু, পেঁয়াজ, তেলসহ ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের ডেপুটি চিফ অব মিশন হুয়ালং ইয়ান। ইঞ্জিনের নৌকায় চড়ে প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে তিনি নিজ হাতে ত্রাণ তুলে দেন।

বিজ্ঞাপন

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের পারস্পরিক সম্পর্ক অত্যন্ত শক্তিশালী। এই সম্পর্কের নিদর্শনস্বরূপ এই দেশের অসহায় জনগণের পাশে দাঁড়ানোকে কর্তব্য মনে করে আমরা এই ত্রাণসামগ্রী নিয়ে এসেছি।

সিলেটে ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা : বন্যার্তদের ত্রাণসামগ্রী দিতে সিলেটে গেছে টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একটি প্রতিনিধিদল। বুধবার রাতে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে সিলেটের উদ্দেশে রওনা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, এলাকাবাসী ও অনলাইন ব্যাংকের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে চার লাখ টাকা সংগ্রহ করা হয়। এ টাকাগুলো দিয়ে সিলেটের বন্যার্ত ৬০০ পরিবারের জন্য ত্রাণসামগ্রী প্যাকেট করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জে ডুসার ত্রাণ বিতরণ : দুদক সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের (ডুসা) পক্ষ থেকে গতকাল সুনামগঞ্জের শাল্লাসহ কয়েকটি উপজেলায় বন্যাদুর্গতদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। দুর্গতদের মধ্যে শুকনা খাবার হিসেবে চিড়া, গুড়, বোতলজাত পানি, খাবার স্যালাইন, মোমবাতি, লাইটারসহ অন্যান্য উপকরণ বিতরণ করতে গিয়ে ডুসার সদস্যরা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। ডুসার সভাপতি মো. মশিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ নজরুল ইসলাম এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, দেশের যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে যেকোনো প্রান্তে আক্রান্ত ও দুর্গত মানুষের সাহায্যে সর্বদা এগিয়ে আসার প্রত্যয়ে ডুসা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

বন্যার্তদের পাশে স্কুল শিক্ষার্থীরা : সিলেটের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য টাঙ্গাইলের মধুপুর শহীদ স্মৃতি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দুই লাখ টাকা দিয়েছে। শিক্ষার্থীরা তাদের টিফিনের টাকা ও মধুপুরের ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সহযোগিতা নিয়ে গত দুই দিনে দুই লাখ টাকা সংগ্রহ করে। তাদের টাকা সিলেটের প্রশাসনের কাছে পাঠানোর জন্য মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীমা ইয়াসমিনের কাছে গতকাল টাকা হস্তান্তর করে।

 

 



সাতদিনের সেরা