kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

স্বর্ণ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার গ্রেপ্তার ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বর্ণ ব্যবসায়ী অনুপ বাউলের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ঋণ নিয়েছিলেন ব্যাবসায়িক অংশীদার নয়ন মণ্ডল। পাওনা টাকা ফেরত চাওয়ায় দুজনের মধ্যে শুরু হয় বিরোধ। এর জেরে অনুপ বাউলকে হত্যার পরিকল্পনা করেন নয়ন। এক পর্যায়ে নয়নের চাচাতো ভাই রিপন মণ্ডলসহ চারজন মিলে অনুপ বাউলকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন।

বিজ্ঞাপন

পরে ভেকু দিয়ে অনুপ বাউলের লাশ বালুর নিচে পুঁতে রাখেন তাঁরা। পাঁচ মাস পর ১৬ ফুট বালুর নিচ থেকে নিখোঁজ স্বর্ণ ব্যবসায়ী অনুপ বাউলের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি দল। পাশাপাশি উদঘাটন করেছে হত্যার রহস্য। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায়। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রিপন মণ্ডল (২৬), নয়ন মণ্ডল (২৬), পিযুষ করাতি (২৫) ও দিলীপ চন্দ্র রায় (৪০) নামের চার ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর ধানমণ্ডির সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার বিস্তারিত জানান পিবিআইয়ের প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি বনজ কুমার মজুমদার। তিনি বলেন, গত ৪ জানুয়ারি মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান এলাকা থেকে শ্বশুরবাড়ি মাদারীপুর যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন স্বর্ণ ব্যবসায়ী অনুপ বাউল। পরদিন ৫ জানুয়ারি তাঁর ছোট ভাই বিপ্লব বাউল একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরে ঘটনা তদন্তে নামে সিরাজদিখান থানার পুলিশ, র্যাব, ডিবি ও পিবিআইয়ের মুন্সীগঞ্জ জেলা শাখা।



সাতদিনের সেরা