kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

পিরোজপুর শুভসংঘের আয়োজন

যৌন হয়রানি, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সমাবেশ

পিরোজপুর সংবাদদাতা   

২৬ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌন হয়রানি, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সমাবেশ

সদর উপজেলার নামাজপুর মহিলা মাদরাসা মিলনায়তনে গতকাল সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পিরোজপুর জেলা কমিটি। ছবি : কালের কণ্ঠ

যৌন হয়রানি ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে পিরোজপুরে শিক্ষার্থী ও অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে সদর উপজেলার নামাজপুর মহিলা মাদরাসা মিলনায়তনে এ সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করে কালের কণ্ঠ শুভসংঘের পিরোজপুর জেলা কমিটি। এতে প্রায় সাড়ে তিন শ শিক্ষার্থী ও অভিভাবক অংশ নেন। শিক্ষার্থীরা অতিথিদের কাছে যৌন হয়রানি ও বাল্যবিবাহের ব্যাপারে স্থানীয় বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে।

বিজ্ঞাপন

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন। জেলা শুভসংঘের সভাপতি সহকারী অধ্যাপক কাজী জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন সদর থানার ওসি আ জ ম মাসুদুজ্জামান, নামাজপুর মহিলা মাদরাসার প্রধান শিক্ষক মো. আলী আখছার, সমাজসেবক রাসেল ফকির, জেলা শুভসংঘের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল জুবায়ের, ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদক স্বর্ণা খান, মেহেদী রনি, মো. রিফাতসহ সমাজের বিভিন্ন ব্যক্তি।

ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন যৌন হয়রানিকারীদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিয়ে বলেন, ‘এখন থেকে স্কুল, কলেজ ও মাদরাসায় মেয়ে শিক্ষার্থীদের আসা-যাওয়ার পথে কোনো বখাটেকে যদি রাস্তায় দেখা যায়, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদেরও সচেতন থাকতে হবে। আপনার সন্তানদের কোনো অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ বাহিনীকে জানাবেন, আমরা আপনাদের নিরাপত্তা দেব, বখাটেদের শাস্তি দেব। ’

ওসি আ জ ম মাসুদুজ্জামান বলেন, ‘আমি ধন্যবাদ দিই শুভসংঘকে। তারা এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের ওপর আলোচনাসভার আয়োজন করেছে। এই এলাকায় (নামাজপুর গ্রাম) বিশেষ করে ইভ টিজিংয়ের (যৌন হয়রানি) অভিযোগ উঠেছে। আমি সদর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে কথা দিয়ে যাচ্ছি, এখন থেকে এই এলাকায় একটিও ইভ টিজিংয়ের ঘটনা ঘটবে না। ছাত্রীদের নিরাপত্তায় এই রুটে পুলিশ সদস্যরা থাকবে। কোনো বখাটে ছাড় পাবে না। অভিযোগ পাওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ’

সহকারী অধ্যাপক কাজী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, শুধু পিরোজপুর সদর উপজেলায় নয়, যৌন হয়রানি ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে পুরো জেলায় কাজ করবে শুভসংঘ। যেখানেই যৌন হয়রানি, বাল্যবিবাহ ও নারী নির্যাতন, সেখাই প্রতিরোধ ও সচেতনতা গড়ে তুলবে শুভসংঘের বন্ধুরা। অসহায় মানুষ ও দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোই শুভসংঘের মূল লক্ষ্য।



সাতদিনের সেরা