kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

জেলেদের ঘরে খাবার নেই

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২৫ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জেলেদের ঘরে খাবার নেই

বঙ্গোপসাগরে গত ১৯ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ দিনের সব ধরনের মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। এ সময়ে জেলেরা কর্মহীন হয়ে পড়েন। সরকার চাল বিতরণ করলেও তা সবাই পান না। আবার সময়মতো এগুলো বিতরণ করা হয় না।

বিজ্ঞাপন

সবচেয়ে খারাপ অবস্থা বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার জেলেদের। এখানে সমুদ্রগামী জেলে চার হাজার ১২০ জন হলেও চাল বরাদ্দ এসেছে ৩৭৪ জনের জন্য। বাকি তিন হাজার ৭৪৬ জন জেলের পরিবার কিভাবে চলবে, সেই প্রশ্নের উত্তর জানা নেই কারো। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

শরণখোলা (বাগেরহাট) : উপকূলীয় এই উপজেলায় শুধু সমুদ্রগামী জেলের সংখ্যাই চার হাজার ১২০ জন। কিন্তু চাল বরাদ্দ এসেছে মাত্র ৩৭৪ জন জেলের। এমন খবরে বেকার জেলেরা পড়েছেন চরম হতাশায়।

শরণখোলা ফিশিং ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মো. আবুল হোসেন বলেন, ‘সরকারি বরাদ্দের চাল দিয়ে কী হবে? তা ছাড়া অবরোধের সময় আমরা সাগরে যাই না। তবে ভারতের জেলেরা আমাদের জলসীমায় ঢুকে মাছ ধরে নিয়ে যায়। তাই আমরা দু-এক দিনের মধ্যে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করব। ’

ভোলা : টানা দুই মাসের বেশি সময় সাগরে নিষেধাজ্ঞা থাকায় পরিবার-পরিজন নিয়ে কিভাবে দিন কাটাবেন, সেই চিন্তায় দিশাহারা জেলেরা। চরফ্যাশন উপজেলার সামারাজ মাছঘাটের জেলে আব্দুর রহমান, আলমগীর ও ইউছুফ মাঝি জানান, কর্মহীন দিন চলছে তাঁদের। আগের জমানো টাকা দিয়ে দুই এক সপ্তাহ কোনো মতে সংসার চললেও এর পর থেকে অভাব-অনটন শুরু হবে।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) : নিষেধাজ্ঞা শুরু হলেও নিবন্ধিত ১৮ হাজার ৩০৫ জেলে চাল পাননি। এ বিষয়ে উপজেলা জেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা বলেন, অবরোধ সফল করতে স্থানীয় প্রশাসন, নৌ পুলিশ, কোস্ট গার্ড, স্থানীয় মৎস্য কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং মৎস্য ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে কাজ শুরু হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে প্রথম ধাপের ১০২৫.০৮ টন চাল বরাদ্দ হয়েছে।

পাথরঘাটা (বরগুনা) : নিবন্ধিত ১১ হাজার ৪১১ জেলে ৮৬ কেজি করে ৯৮১.৩৪ টন চাল পাবেন। বরাদ্দ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ। তবে ট্রলার মালিক ও মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সহসভাপতি মো. আবুল ফরাজী জানান, জেলেদের শুধু চাল না, অন্যান্য সওদা বাবদ নগদ টাকা দেওয়া উচিত।



সাতদিনের সেরা