kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ এমপির অস্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ সরকারি মাহতাব উদ্দীন কলেজের এক শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) আনোয়ারুল আজীম আনারের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

শিক্ষকের নাম সাজ্জাদ হোসেন। তিনি কলেজের সহকারী অধ্যাপক।

বিজ্ঞাপন

শিক্ষক ও প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য, বৃহস্পতিবার বিকেলে আনোয়ারুল আজীম আনার হঠাত্ কলেজে ঢুকে  সাজ্জাদ হোসাইনকে চড়-থাপ্পড় মারেন। এরপর শিক্ষকদের কমন রুমে ঢুকে হুমকি-ধমকি দিয়ে চলে যান।

কলেজের অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান বলেন, কলেজ থেকে সরকারি খাতা চুরির বিষয় নিয়ে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশক্রমে একটি চুরির মামলা করা হয় আদালতে। এ মামলার সাক্ষী হলেন সাজ্জাদ হোসাইন। এ কারণে তাঁর ওপর আসামিরা ক্ষুব্ধ। তিনি আরো বলেন, কলেজের কাজে সহকারী অধ্যাপক মো. মোশাররফ হোসেনকে সাময়িক ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দেওয়ার পর নন-এমপিও ৬১ নম্বর সিরিয়ালধারী জুনিয়র প্রভাষক সুব্রত কুমার নন্দী ও খাতা চুরির মামলার আসামি সাবেক উপাধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ চুরির ঘটনা ধামাচাপা দিতে কিছু বহিরাগত, কলেজের স্টাফ সবুজ ও পিয়ন তাপসের সহায়তায় ত্রাস সৃষ্টিসহ সহকারী অধ্যাপক মোশাররফকে লাঞ্ছিত করেন।

সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার বলেন, ‘মাহাতাব উদ্দিন ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণ করা হয়েছে। কিন্তু শিক্ষকদের বেতন এখনো জাতীয়করণ হয়নি। কারণ কলেজের অনিয়মের বিষয়ে দুদকে একটি মামলা হয়। ওই মামলা খারিজ হয়ে গেছে। আমি কলেজে গিয়েছিলাম শিক্ষকদের বেতন জাতীয়করণের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেওয়ার ব্যাপারে কথা বলতে। ’ তিনি মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।



সাতদিনের সেরা