kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

শেখ জামালের উদযাপন যেন মিলনমেলা

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

২১ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



শেখ জামালের উদযাপন যেন মিলনমেলা

‘সেলিব্রেটিং ক্রিকেট উইথ ফ্রেন্ডস’ অনুষ্ঠানে কেক কেটে শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের প্রথম শিরোপা জয় উদযাপন। খেলোয়াড়দের সঙ্গে ছিলেন প্রধান অতিথি বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এবং ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান। গতকাল বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ক্লাবের প্রেসিডেন্টের বাসভবনে। ছবি : কালের কণ্ঠ

নুরুল হাসান পাঁচ বছর ধরেই খেলছেন শেখ জামাল ধানমণ্ডিতে। খেলতে খেলতে রীতিমতো ‘ঘরের ছেলে’ বনে যাওয়া এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটার সন্দেহাতীতভাবেই প্রথমবারের মতো দলটির ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) জয়ে সেরা পারফরমার। ৯৬-এর বেশি গড়ে ৪৮৩ রান করা এই ক্রিকেটারের জন্য যে বড় অর্থপুরস্কারও অপেক্ষায় ছিল, সেটি জানলেন শেখ জামালের প্রথম শিরোপা জয় উদযাপনে আয়োজিত ‘সেলিব্রেটিং ক্রিকেট উইথ ফ্রেন্ডস’ অনুষ্ঠানে এসে। যেখানে প্রধান অতিথি বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানের মুখেই নুরুলের জন্য ঘোষিত হলো ২৫ লাখ টাকার পুরস্কার।

বিজ্ঞাপন

নুরুলও মঞ্চে উঠে জানালেন, এর আগে চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলেও দলটির প্রেসিডেন্ট ও বসুন্ধরা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান দায়িত্ব নিয়েই এমন পরিবেশ নিশ্চিত করেছেন যে এটি শুধুই একটি দল হয়ে থাকেনি, হয়ে উঠেছিল একটি পরিবারও। যে পরিবারে পারফরমারেরও কোনো অভাব ছিল না। অধিনায়ক ইমরুল কায়েস থেকে শুরু করে দলের জয়ে অবদান রাখা ক্রিকেটারের সংখ্যাধিক্যে ১৫ ম্যাচের ১২টিই জিতে শেখ জামাল চ্যাম্পিয়ন হয় দোর্দণ্ড প্রতাপেই। জাতীয় দল দক্ষিণ আফ্রিকা সফর থেকে ফেরার আগেই মোহামেডান আসর থেকে ছিটকে যাওয়ায় তাদের হয়ে একটি ম্যাচও খেলা হয়নি মুশফিকুর রহিম ও মেহেদী হাসান মিরাজের। এই দুই ক্রিকেটারকেও নিজেদের শিরোপা জয়ের অভিযানে যুক্ত করে নেয় জামাল। শিরোপা সাফল্যে তাই অংশীদার এই দুজনও। এর আগে অন্য দলে খেললেও জামালের ক্রিকেটারদের জন্য ‘স্বাচ্ছন্দ্যের পরিবেশ’ থাকার কথা শুনেছেন মিরাজ। এবার নিজেরও সেই অভিজ্ঞতা হলো বলে জানালেন এই অফস্পিনিং অলরাউন্ডার। আর মুশফিক শোনালেন একজন ‘ডাইনোসর’-এর গল্প, ‘জিয়া ভাই এত বিশাল সব ছক্কা মারেন যে তাঁকে ডাইনোসর বলি। ’

শিরোপা জয়ের নেপথ্যে এমন সব গল্পের নায়কদের নিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় সাফল্য উদযাপনের আয়োজন ছিল বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ভাইস চেয়ারম্যান হাউসে, যেটি হয়ে উঠেছিল ক্রিকেটসংশ্লিষ্ট সবার এক অন্য রকম মিলনমেলাও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান থেকে শুরু করে পরিচালক, নির্বাচক, সাবেক অধিনায়ক, ম্যাচ রেফারি, আম্পায়ার—কে না ছিলেন এই অনুষ্ঠানে? বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান এই জয়ে আরো বেশি উচ্ছ্বসিত এ জন্য যে, ‘শেখ জামাল ধানমণ্ডি যেদিন চ্যাম্পিয়ন হয়, সেই দিনটি (লিগের ট্রফি উঁচিয়ে ধরার দিন) আবার ছিল লেফটেন্যান্ট শেখ জামালের জন্মদিনও। ’ দেশের ক্রিকেট উন্নয়নে ক্রিকেট অন্তপ্রাণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুপ্রেরণায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের অবদানের কথা উল্লেখ করতেও ভোলেননি তিনি। আর ক্লাব প্রেসিডেন্ট সাফওয়ান সোবহান বলেন, ‘পাঁচ বছর ধরেই আমরা একটি উইনিং টিম গড়ার চেষ্টা করে আসছিলাম। এবার আমরা তাতে সফলও হলাম। ’



সাতদিনের সেরা