kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

বসুন্ধরা চক্ষু হাসপাতাল

বিনা মূল্যে ২৮ রোগীর ছানি অপারেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিনা মূল্যে ২৮ রোগীর ছানি অপারেশন

চোখে অস্ত্রোপচারের পর টাঙ্গাইলের তোফাজ্জল হোসেনের মুখে হাসি। গতকাল রাজধানীর বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে অসহায়-দুস্থ ২৮ রোগীর বিনা মূল্যে চোখের ছানি ও নেত্রনালি অপারেশন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট, ভিশন কেয়ার ফাউন্ডেশন ও রোটারি ক্লাব অব বারিধারা সানরাইজের যৌথ উদ্যোগে বিনা মূল্যে এই চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। প্রফেসর ডা. মৌটুসি ইসলামের তত্ত্বাবধায়নে ডা. রুবিনা আক্তারের সহায়তায় এ অপারেশন পরিচালিত হয়।

গতকাল যে ২৮ জন রোগীকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়েছে তাঁদের মধ্যে ১৬ জন পুরুষ এবং ১২ জন নারী।

বিজ্ঞাপন

এঁদের মধ্যে ২৭ জনের চোখের ছানি অপারেশন এবং একজনের নেত্রনালি অপারেশন করা হয়।

চোখের ছানি অপারেশন করতে টাঙ্গাইলের গোপালপুর থেকে এসেছিলেন আব্দুল লতিফ (৭৪)। হাসপাতালে তাঁর সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ‘অনেক দিন হলো আমার চোখে ছানি পড়েছে। দুই বছর ধরে চোখে ঠিকভাবে দেখতে পাই না কিছু। আমার ভাইও এই হাসপাতালে চোখ অপারেশন করিয়েছিল। এখানে বিনা টাকায় অপারেশন করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই আমাদের এখানে নিয়ে এসেছে। ’

জামালপুরের চানপুর থেকে এসেছেন হাসনা (৬৯) বেগম। তিনি বলেন, ‘আমার বাম চোক্ষে দেহি না অনেক দিন ধইরা। ওইডায় ছানি পড়ছে মেলা দিন হইছে। এইহানে সব কিছু বিনা টাহায় করাইয়া দেয়। বড় ভালা লাগতাছে। ’

দেশজুড়ে জেলায় জেলায় বিনা মূল্যে আই ক্যাম্পের আয়োজন করে বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট। প্রতি মাসে অন্তত দুটি জেলায় এই আই ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। সবশেষ গত ২৫ মার্চ টাঙ্গাইলের গোপালপুরের ভেঙ্গুলায় খন্দকার ফজলুল হক ডিগ্রি কলেজে বিনা মূল্যে আই ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়েছিল। ওই সময় ৮৫ জন রোগীকে অপারেশনের জন্য বাছাই করা হয়। যার মধ্যে প্রথম পর্যায়ে গতকাল ২৮ জন রোগীকে ঢাকায় এনে অপারেশন করা হয়।

বসুন্ধরা আই হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের এইচআর অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আহসান হাবীব বলেন, ‘বাকি রোগীদেরও পর্যায়ক্রমে অপারেশনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। আগামী ৩ জুন চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ২৪ জুন কুমিল্লায় বিনা মূল্যে আই ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়েছে। করোনার কারণে গত দুই বছর আমাদের এই কার্যক্রম বন্ধ ছিল। করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসার সঙ্গে সঙ্গে আমরা আবার আই ক্যাম্পের কার্যক্রম শুরু করেছি। ’

তিনি আরো বলেন, ‘বিনা মূলে এই আই ক্যাম্পের আওতায় রোগীদের ঢাকায় নিয়ে আসা, অপারেশন, এক দিন থাকা-খাওয়াসহ বিনা মূল্যে এক মাসের ওষুধ দেওয়া হয়। আর যখন জেলা পর্যায়ে আই ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়, তখন রোগীদের প্রয়োজনীয় ওষুধ দেওয়া হয় বিনা মূল্যে। ’

দেশজুড়ে বিনা মূল্যে এই আই ক্যাম্পের আওতায় এ পর্যন্ত এক হাজার ২০০-র বেশি রোগীকে অপারেশন করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা