kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

বায়ুদূষণ

‘বন্ধ করা’ ইটখোলার তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকাসহ পাঁচ জেলায় বন্ধ করে দেওয়ার পরও চলছে এমন অবৈধ ইটখোলার তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট। জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এই তালিকা দিতে বলা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার এই আদেশ দেন বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

‘অবৈধ ইটখোলা’ বন্ধ না করে প্রতিবেদন দিয়ে বলা হয়েছে, বন্ধ করা হয়েছে—রিটকারী পক্ষ এমন অভিযোগ তুলে আবেদন করলে গত ২০ এপ্রিল পাঁচ জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে তলব করেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার সেই তলবে হাজির হয়ে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ এবং গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এই অভিযোগের ব্যাখ্যা দেন।

আদালতে রিটকারী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পাঁচ জেলা প্রশাসক আদালতে হাজির হয়ে বলেছেন, ৯৫ শতাংশ অবৈধ ইটখোলা তাঁরা বন্ধ করেছেন। আর পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক তালিকা দিয়ে বলেছেন, ঢাকাসহ পাঁচ জেলায় ৪১১টি অবৈধ ইটখোলা আছে। এর মধ্যে ৬৫ শতাংশ বন্ধ করা হয়েছে।

আইনজীবী মনজিল আরো বলেন, ‘আইনের বিধান অনুযায়ী কোনো ইটখোলার মালিককে যদি দুই বছরের সাজা দেওয়া হয় তাহলে আর সেই মালিক অবৈধ ইটখোলা চালাবে না। কিন্তু তারা (জেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর) সেটা না করে মাত্র ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে। পরবর্তী সময়ে অবৈধভাবে ইটখোলা আবার চালু করে সেই ২০ হাজার টাকা আবার তুলে নেয় মালিকরা। আমরা অনুসন্ধান করে দেখি বন্ধ করা কোনো ইটখোলা চলছে কি না। যদি চলে তার দায়িত্ব তাঁদের (জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক) নিতে হবে। শুনে আদালত বন্ধ করা অবৈধ ইটখোলার তালিকা চেয়েছেন। দুই সপ্তাহের মধ্যে তাঁদের তালিকা দিতে বলেছেন। ’

 



সাতদিনের সেরা