kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

ভোজ্য তেল

আরো ১০ হাজার লিটার জব্দ

♦ চট্টগ্রামের একটি দোকানে ছয় হাজার ১২০ লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়, যা বাড়তি দামে বিক্রি করা হচ্ছিল
♦ দোকান মালিককে আড়াই লাখ টাকা জরিমানা করে তেলগুলো পুরনো দামে বিক্রির অঙ্গীকারপত্র নেওয়া হয়

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভোজ্য তেলের অবৈধ মজুদবিরোধী অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গতকাল রবিবার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রাম ও নেত্রকোনা থেকে ১০ হাজার লিটারের চেয়েও বেশি সয়াবিন তেল জব্দ করেছে স্থানীয় প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ সময় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে প্রায় চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তেল উদ্ধারের পর তা উপস্থিতভাবে লোকজনের কাছে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করা হয়।

বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম জানান, চট্টগ্রাম মহানগরীর সল্টগোলা ক্রসিং ঈশান মিস্ত্রির ঘাট এলাকার একটি দোকানে গতকাল রবিবার অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। সেখানে ছয় হাজার ১২০ লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়, যা বাড়তি দামে বিক্রি করা হচ্ছিল। অভিযানে ভোক্তা অধিকার ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে ওই দোকান মালিককে আড়াই লাখ টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি তেলগুলো পুরনো দামে বিক্রির অঙ্গীকারপত্র নেওয়া হয়। অভিযানে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরকে সহযোগিতা দিয়েছে র‌্যাব-৭।

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি জানান, নেত্রকোনার দুর্গাপুরের ঝাঞ্জাইল বাজারে গতকাল দুপুরে যৌথ অভিযান চালায় উপজেলা প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ সময় মোতালেব অয়েল মিলকে ৩৪০ লিটার বোতলজাত তেল খোলা সয়াবিন তেলের সঙ্গে মিশিয়ে বেশি দামে বিক্রি করার অভিযোগে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অন্যদিকে দুর্গাপুর পৌর বাজারে অভিযান চালিয়ে দীপ্ত এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ডিলার পয়েন্টে ১১৮ লিটার সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। প্রতিষ্ঠানটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও উদ্ধারকৃত তেল উপস্থিত ভোক্তাদের মাঝে বোতলের গায়ের রেট অনুযায়ী বিক্রি করা হয়।

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে গতকাল রবিবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে প্রায় ১৭০০ লিটার সয়াবিন তেল অবৈধভাবে মজুদ রাখার দায়ে এক ব্যবসায়ীকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ও উদ্ধারকৃত তেল ন্যায্যমূল্যে বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার (ভূমি) লিয়াকত সালমানের নেতৃত্বে এদিন শহরের দ্বারিয়াপুর বাজারের বেশ কয়েকটি তেলের দোকানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় দত্ত স্টোরের গোডাউন থেকে প্রায় ৬০০ লিটার বোতলজাত সয়াবিন ও ১১০০ লিটার খোলা সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়।

ভোলা প্রতিনিধি জানান, ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় এক ডিলারের গুদামে অভিযান চালিয়ে এক হাজার ৭৭৬ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। শনিবার রাতে মেসার্স মাকসুদুর রহমান এন্টারপ্রাইজের তেলের গুদামে এ অভিযান চালানো হয়। পরে জব্দ করা তেল বোতলের গায়ের দামে স্থানীয়দের কাছে বিক্রি করা হয়। একই সঙ্গে অবৈধভাবে তেল মজুদের দায়ে ডিলারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বোরহানউদ্দিন উপজেলার ইউএনও মো. সাইফুর রহমান। অভিযানে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশসহ গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, গত কয়েক দিন ধরেই ব্যবসায়ীরা পরিবেশকের কাছে সয়াবিন তেল চাইলে তেল নেই বলে তাঁদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা