kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

খাদ্য উৎপাদনে সতর্ক হন : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



খাদ্য উৎপাদনে সতর্ক হন : প্রধানমন্ত্রী

গণভবনে গতকাল আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি : পিআইডি

বৈশ্বিক পরিস্থিতির প্রভাবে এ দেশের খাদ্য উৎপাদন যেন ব্যাহত না হয় সেদিকে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে সার আমদানি যদি ব্যাহত হয় তবু যেন ফসল উৎপাদনে প্রভাব না পড়ে সেদিকে তিনি গুরুত্ব দিতে বলেছেন। কোনো ফসলি জমি যেন অনাবাদি না থাকে সেটাও নিশ্চিত করতে বলেছেন।  

গতকাল আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এসব নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

সভায় উপস্থিত একাধিক সূত্র কালের কণ্ঠকে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন শেখ হাসিনা। স্থানীয় সরকারের তিনটি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ছয়টি পৌরসভার মেয়র এবং ১৩৮টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার জন্য এই সভা আহ্বান করা হলেও সমসাময়িক নানা বিষয়েও আলোচনা হয়।

সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে জানান, আন্তর্জাতিক নানা পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশে তার কী ধরনের প্রভাব পড়তে পারে এবং এসব কিভাবে সামাল দেওয়া যায় তা নিয়ে সভায় কথা বলেন নেতারা।

রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব এ দেশের কৃষিতে পড়তে পারে বলেও বলেন একাধিক নেতা। সরকার রাশিয়া থেকে পটাশিয়ামসহ একাধিক সার আমদানি করে থাকে। যুদ্ধের ফলে এই সার আমদানি ব্যাহত হলে দাম বেড়ে যেতে পারে। আবার পর্যাপ্ত সার আমদানি না করা গেলে ফসল উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এমন অবস্থায় আগে থেকেই সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশনা দিয়েছেন শেখ হাসিনা। তিনি দেশের কোথাও যেন ফসলি কোনো জমি অনাবাদি না থাকে সেটি নিশ্চিত করতে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাককে নির্দেশনা দিয়েছেন।

দলীয় একাধিক সূত্র কালের কণ্ঠকে জানায়, দেশে মানুষের মধ্যে হতাশা সৃষ্টির জন্য একটি মহল চক্রান্ত করছে বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা। তিনি ওই মহলের বিরুদ্ধে দলের নেতাকর্মীদের সক্রিয় হতে বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, অর্থনীতির সব সূচকে বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে রয়েছে। তবে সরকারি ব্যয় সংকোচনের জন্য কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা কাটছাঁট করছি। সতর্কতা অবলম্বন করছি। আগামী ছয় মাস খুব ক্রিটিক্যাল সময়। এ সময় সবাইকে চোখ-কান খোলা রেখে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

সভায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশন, পাঁচটি পৌরসভা ও ১৩৮টি ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাতকে কোন বিবেচনায় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে মনোনয়ন বোর্ডের একজন সদস্য বলেন, সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেছেন, ওর (রিফাত) বিষয়ে জরিপে ভালো ফল এসেছে। ওকে মনোনয়ন দিলে জিতে আসতে পারবে।



সাতদিনের সেরা