kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ আগস্ট ২০২২ । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১২ মহররম ১৪৪৪

আধিপত্য বিস্তার ঘিরে ফুলতলার ব্যবসায়ী হত্যা

মামলা হয়নি দাফন সম্পন্ন

খুলনা অফিস   

১৪ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খুলনার ফুলতলা বণিক সোসাইটির ক্রীড়া সম্পাদক খন্দকার রকিবুল ইসলাম হত্যার ঘটনায় গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। ফুলতলা থানার ওসি জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল যশোরের অভয়নগর হওয়ায় অভয়নগর থানায় মামলা হবে। জেলা পুলিশ এরই মধ্যে হত্যা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের ধারণা, আধিপত্য বিস্তার, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত অর্থের লেনদেনকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

বিজ্ঞাপন

ময়নাতদন্ত শেষে গতকাল দুপুরে রকিবুলের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাদ আসর ফুলতলা এমএম কলেজ মসজিদ চত্বরে জানাজার পর উপজেলা সরকারি গোরস্থানে তাঁর লাশের দাফন সম্পন্ন হয়।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, রকিবুল দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তাঁর  বিরুদ্ধে ফুলতলা ও অভয়নগর থানায় হত্যা, অস্ত্রসহ পাঁচটি মামলা রয়েছে। ফুলতলার আলকা কলেজপাড়ায় তাঁর বাড়ি হলেও বিভিন্ন সময় অভয়নগরের দত্তগাতী, দামুখালী, ভবদহ ও কপালিয়া এলাকায় রকিবুলের একচ্ছত্র আধিপাত্য ছিল। এক সপ্তাহ আগে তিনি আলকা চরপুকুর এলাকার আনোয়ার শেখের মেয়ে পেয়ারী বেগম ওরফে বর্ষাকে বিয়ে করেন। বর্ষার এটি দ্বিতীয় বিয়ে। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে মোটরসাইকেলে ফুলতলায় ফেরার পথে অভয়নগরের দত্তগাতী প্রাইমারি স্কুলের কাছে সন্ত্রাসীদের গুলিতে রকিকুল নিহত এবং তাঁর স্ত্রী আহত হন।

ফুলতলা থানার ওসি মো. ইলিয়াস তালুকদার বলেন, ‘রকিবুলের বাড়ি ফুলতলায় হলেও হত্যার ঘটনা অভয়নগরে ঘটায় সেখানেই মামলা হবে। পাশাপাশি আমরাও তদন্তে সহায়তা দেব। আধিপত্য বিস্তার ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত কোনো অর্থের লেনদেনকে কেন্দ্র করে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাঁকে ডেকে এনে হত্যা করা হয়েছে কি না পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। ’



সাতদিনের সেরা