kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

দেরিতে যাত্রা তিন ট্রেনের

অতিরিক্ত কাজের ভাতা দাবি ছয় ট্রেনের যাত্রা বাতিল

রবিবার রেলপথ মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসতে চান আন্দোলনকারীরা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অতিরিক্ত সময় বা কাজের জন্য অতিরিক্ত ভাতার (মাইলেজ) দাবিতে গতকাল বুধবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি শাটল ট্রেন, চট্টগ্রাম-নাজিরহাটের দুটি ডেমো ট্রেন ও লালমনিরহাট-বগুড়া-সান্তাহার পথের একটি ট্রেনের যাত্রা বাতিল হয়েছে। কর্মসময় আট ঘণ্টা পূর্ণ হওয়ার পর চালকরা বিশ্রাম চাওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার আমনুরা জংশন স্টেশন থেকে যাত্রীবোঝাই দুটি ট্রেন দেরিতে গন্তব্যের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। একই কারণে কুমিল্লার লাকসামে একটি ট্রেন ‘সমতট এক্সপ্রেস’ এক ঘণ্টা আটকে ছিল।

চট্টগ্রাম থেকে বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী পণ্যবাহী (কনটেইনার) ট্রেনগুলোতেও রানিং স্টাফ (চালক, সহকারী, গার্ড ও টিটি) সংকট (নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে কাজ না করায়) দেখা দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানান।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার রাতে চারটি পণ্যবাহী ট্রেন চট্টগ্রাম থেকে ছাড়েনি। সেগুলো গতকাল গন্তব্যে যায়।

এ ছাড়া মাইলেজ বাতিল বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপন ৩০ জানুয়ারির মধ্যে বাতিলের দাবিতে বিকেলে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে রানিং স্টাফ ঐক্য পরিষদ। এক ঘণ্টার এই কর্মসূচি পালনকালে স্টেশনের প্ল্যাটফর্মসহ বিভিন্ন পয়েন্টে মিছিল করেন রানিং স্টাফরা।

রেল ভবন সূত্র জানায়, রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল মাইলেজ জটিলতা মীমাংসা করতে আন্দোলনকারীদের আজ বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসতে বলা হয়। কিন্তু তাঁরা এতে রাজি হননি। আগামী রবিবার রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চাচ্ছেন তাঁরা। যদি রেলমন্ত্রী ওই দিন সময় দেন তাহলে বরিবার বৈঠক হবে। নাহলে সোমবার বৈঠক হতে পারে।

গতকাল দেশের বিভিন্ন জায়গায় ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকা নিয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিচালন) সরদার শাহাদাত আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, কোথাও ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল না। কিছু জায়গায় ট্রেন দেরি করে ছেড়েছে। দ্রুতই বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে। তাঁদের দাবি মেনে নেওয়া হবে।

আমনুরা জংশন মাস্টার হাসিবুল হাসান বলেন, গতকাল সকাল ৬টা ২০ মিনিটে শিডিউল মোতাবেক জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর স্টেশন থেকে খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে আসে ১৬ ডাউন মহানন্দা এক্সপ্রেস। ট্রেনটি আমনুরা পৌঁছার পর ৭টা ৬ মিনিটে আবার খুলনার পথে রাজশাহীর দিকে রওনা হওয়ার সূচি নির্ধারিত ছিল। কিন্তু আমনুরা আসার পর চালক তাঁর কর্মসময় পূর্ণ হয়েছে জানিয়ে ট্রেন নিয়ে যেতে অস্বীকার করে বিশ্রাম চান। এতে ট্রেনটি ৪০ মিনিট দেরিতে গন্তব্যের দিকে রওনা দেয়। চালক জানান, তিনি কর্মসময় পূর্ণ হওয়ার পর ট্রেন চালাতে অপারগতার বিষয়টি লিখিতভাবে (মেমো) রহনপুর স্টেশনে দিয়ে এসেছেন।

চট্টগ্রাম রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক রতন কুমার চৌধুরী বলেন, ‘ক্রু (লোকোমাস্টার) সংকটের কারণে আজকে (গতকাল) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি শাটল ট্রেন যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। তবে অন্য সব রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। ’

[প্রতিবেদনে তথ্য নিয়েছেন নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ও চট্টগ্রাম এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও লালমনিরহাট প্রতিনিধি]



সাতদিনের সেরা