kalerkantho

শনিবার । ১৩ আগস্ট ২০২২ । ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৪ মহররম ১৪৪৪  

ইউপি নির্বাচন

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ সাত প্রার্থীর

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে এবার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন সাত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা। গতকাল বুধবার দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সাত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী একসঙ্গে নোয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এই লিখিত অভিযোগ দেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তাঁর অনুসারী জনবিচ্ছিন্ন প্রার্থীদের জোরপূর্বক কেন্দ্র দখল করে অবৈধভাবে নির্বাচিত করার লক্ষ্যে সাতটি ইউনিয়নে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আব্দুল কাদের মির্জা এরই মধ্যে তাঁর সন্ত্রাসীদের দিয়ে এবং তিনি সশরীরে বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে উপস্থিত হয়ে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীসহ কর্মী-সমর্থক ও সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন।

বিজ্ঞাপন

মোবাইল ফোনেও অনেককে হুমকি দিচ্ছেন। এতে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

অভিযোগে আরো বলা হয়, কাদের মির্জা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে পৌরসভার সরকারি গাড়িসহ তাঁর লোকজন সঙ্গে করে গাড়িবহর নিয়ে বিভিন্ন গণসংযোগে উপস্থিত হয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য ও নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করার অপচেষ্টায় লিপ্ত।

লিখিত অভিযোগ দেওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন ২ নম্বর চরপার্বতী ইউপির মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু, মুছাপুর ইউপির নজরুল ইসলাম চৌধুরী শাহীন, ৮ নম্বর চর এলাহী ইউপির আব্দুর রাজ্জাক, ৬ নম্বর রামপুর ইউপির সিরাজিস সালেকীন রিমন, ৩ নম্বর চরহাজারী ইউপির নুরুজ্জামান স্বপন, ৫ নম্বর চরফকিরা ইউপির জায়দল হক কচি, ১ নম্বর সিরাজপুর ইউপির মাঈন উদ্দিন মামুন।

অভিযোগের বিষয়ে গতকাল সন্ধ্যায় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার মোবাইল ফোনে বারবার কল করলেও তিনি ধরেননি।



সাতদিনের সেরা