kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

সুস্থ হয়ে শুধু মা-বাবাকে খুঁজছে শিশু বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুস্থ হয়ে শুধু মা-বাবাকে খুঁজছে শিশু বৃষ্টি

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় বেপরোয়া বাসের চাপায় মা-বাবা ও নানাকে হারানো আহত শিশু শাকিরা আক্তার বৃষ্টি (৬) এখন অনেকটাই সুস্থ। স্বজনরা বলছেন, সুস্থ হয়ে হাসপাতালে থাকতে চাচ্ছে না বৃষ্টি। বারবার মা-বাবার কাছে যেতে চাচ্ছে সে। তবে শিশুটি এখনো জানে না যে তার মা-বাবা বেঁচে নেই।

বিজ্ঞাপন

মামা নজরুল ইসলাম ও মামি সোনিয়া আক্তার শিশু বৃষ্টির দেখভাল করছেন। নজরুল ইসলাম বলেন, ভাগ্নি বৃষ্টি মাথায় সামান্য আঘাত পেয়েছিল। তবে চিকিৎসার পর এখন সে আগের তুলনায় বেশ ভালো আছে। আর হাসপাতালে থাকতে চাচ্ছে না। শুধু মা-বাবার কাছে যেতে চাচ্ছে। আবার কখনো আপন মনে খেলছে। তবে শাকিরাকে এখনো মা-বাবা ও নানার মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি।

নজরুল বলেন, ‘বৃষ্টি মা-বাবার কাছে যেতে চাইলে সান্ত্বনা দিয়ে বলা হচ্ছে, তার অসুস্থ নানিকে দেখভাল করছেন মা। বাবাও সেখানে আছেন। এ কারণে মা-বাবা তার কাছে আসতে পারছেন না। ’

শিশুটির মামা আরো বলেন, ‘আজ (মঙ্গলবার) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার কথা থাকলেও বৃষ্টিকে আরো দু-এক দিন পর্যবেক্ষণে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। ’

গত শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা উল্টে প্রাণ হারিয়েছেন শিশু বৃষ্টির বাবা রিয়াজ খান (৪০), মা শারমিন আক্তার (৩২) এবং নানা আবদুর রহমান ব্যাপারী (৬০)। ঘটনার সময় শিশু বৃষ্টিও তাঁদের সঙ্গে ছিল। আহত অবস্থায় শিশুটিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে। শিশুটিকে যেকোনো সময় ছাড়পত্র দেওয়া হতে পারে বলেও জানান ঢামেক হাসপাতালের সার্জারি বিশেষজ্ঞ শিশির কুমার ঘোষ। গতকাল তিনি বলেন, বৃষ্টি এখন সুস্থ। বুকে আঘাত থাকায় আরো দু-এক দিন পর্যবেক্ষণে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঢামেক শিশু সার্জারি বিভাগের ২০৩ নম্বর ওয়ার্ডে শাকিরা তার বড় মামি সোনিয়া পারভীনের সঙ্গে থাকছে। অন্য শিশুদের সঙ্গে তাকে খেলতে দেখা যায়।

যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশ জানায়, এ দুর্ঘটনায় চালক ও হেল্পারকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।



সাতদিনের সেরা