kalerkantho

বুধবার । ২৯ জুন ২০২২ । ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৮ জিলকদ ১৪৪৩

জনস্বার্থকে সব কিছুর ঊর্ধ্বে স্থান দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনস্বার্থকে সব কিছুর ঊর্ধ্বে স্থান দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেছেন, জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। আর জনগণের সব প্রত্যাশার কেন্দ্রবিন্দু জাতীয় সংসদ। তাই জাতীয় সংসদে সরকারি ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যদের যথাযথ ও কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

সন্ত্রাস, মাদক, দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে দেশের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

গতকাল রবিবার জাতীয় সংসদে দেওয়া ভাষণে এ আহবান জানান তিনি। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে চলতি সংসদের ১৬তম (শীতকালীন) অধিবেশন শুরু হয়।

৫৭ পৃষ্ঠার ভাষণের সংক্ষিপ্তসারে রাষ্ট্রপতি দেশের অর্থনীতি, বাণিজ্য-বিনিয়োগ, খাদ্য-কৃষি, পরিবেশ-জলবায়ু, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, করোনা মহামারি মোকাবেলাসহ বিভিন্ন খাতে সরকারের কার্যক্রম ও সাফল্য তুলে ধরেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণ শেষে অধিবেশন আজ সোমবার সকাল ১১টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়।

রাষ্ট্রপতি বলেন, নতুন প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ, সুখী, সুন্দর ও উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ উপহার দেওয়া আমাদের পবিত্র কর্তব্য। এ লক্ষ্যে গণতন্ত্র, আইনের শাসন এবং উন্নয়নের মতো মৌলিক প্রশ্নে দলমত, শ্রেণি-পেশা নির্বিশেষে আপামর জনগণকে সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। লাখো প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত গৌরবোজ্জ্বল মহান স্বাধীনতা সমুন্নত রেখে দেশ থেকে সন্ত্রাস, মাদক, দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদ নির্মূলের মাধ্যমে জাতির পিতার স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়তে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, গত দেড় দশকে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকারি ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। এ জন্য সরকারি অর্থের অপব্যবহার রোধপূর্বক প্রকল্পসংশ্লিষ্ট সব বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। সর্বোপরি সরকারি সব কার্যক্রমে জনগণের যথাযথ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিমূলক সুশাসন প্রতিষ্ঠা করে গণতন্ত্রকে অধিক কার্যকর করতে হবে।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ক্ষেত্রে বিশ্বের জন্য বাংলাদেশ একটি অনন্য উদাহরণ উল্লেখ করে রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, দেশের সব মানুষ যাতে সম্প্রীতি সহকারে নিজ নিজ ধর্মচর্চা করতে পারে সে বিষয়ে সরকার সচেষ্ট রয়েছে। তথাপি ধর্মের নামে কোনো ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী যাতে দেশের স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করতে না পারে সেদিকে আমাদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, সরকারের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে যেকোনো দেশের তুলনায় বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার অপেক্ষাকৃত কম। প্রধানমন্ত্রীর সাহসী, দূরদর্শী নেতৃত্ব ও অনুপ্রেরণায় আমরা এখন পর্যন্ত করোনা এবং এর অভিঘাত সফলভাবে মোকাবেলা করে যাচ্ছি।



সাতদিনের সেরা