kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

কামারখন্দে শপথের আগেই ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা   

১৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে এসে নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন আব্দুস সাত্তার। কিন্তু শপথ নেওয়ার আগেই আরেকটি নতুন মামলায় আবারও গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে গেলেন ওই ইউপি সদস্য। গত শুক্রবার সকালে পাউবো কর্মকর্তাকে মারধর, ভেকু মেশিন ভাঙচুর ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে চার সহযোগীসহ ওই ইউপি সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলার ভদ্রঘাট ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত সদস্য নুরনগর গ্রামের আব্দুল মান্নান হুন্ডির ছেলে আব্দুস সাত্তার (৪২), তাঁর তিন সহযোগী চকনুরনগর গ্রামের খোরশেদ সেখের ছেলে আব্দুল মজিদ (৫২), একই গ্রামের আব্দুস সোবহান সেখের ছেলে সুলতান আলী সেখ (৬৫) ও মো. সুলতানের ছেলে আশরাফুল (৩০)।

বিজ্ঞাপন

মামলার বাদী বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবো) সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর পওর শাখার উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল ওহাবের অভিযোগ, শুক্রবার সকালে উপজেলার চকনুরনগর গ্রামের পাশে সেনাবাহিনীর তত্ত্ব্বাবধানে পরিচালিত ‘বাঙ্গালী-করতোয়া-ফুলজোড় ও হুড়াসাগর নদী সিস্টেম ড্রেজিংসহ তীর সংরক্ষণ’ প্রকল্পের কাজ শুরু করা হয়। এ সময় আব্দুস সাত্তারের নেতৃত্বে সংঘবদ্ধ আসামিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে সেনাবাহিনীর নিয়োজিত ঠিকাদারের দুটি ভেকু মেশিন ভাঙচুর করে। এ অবস্থায় ঘটনাস্থলে থাকা দুই সেনা সদস্য, দুটি ভেকু মেশিনের চালক ও সহকারী এবং ঠিকাদারের প্রতিনিধি মিলে তাদের বাধা দিতে গেলে হামলাকারীরা উপসহকারী প্রকৌশলী হায়দার আলীকে মারধর করে। খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পাউবোর পদস্থ কর্মকর্তারা এবং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।

কামারখন্দ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আহসানুজ্জামান বলেন, ‘মামলায় ২৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতপরিচয় আরো দুই শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। গ্রেপ্তার চারজনকে শনিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ’



সাতদিনের সেরা