kalerkantho

শুক্রবার । ১২ আগস্ট ২০২২ । ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৩ মহররম ১৪৪৪

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী

নির্বাচনের তিন দিন পর পরাজিত প্রার্থীর লাশ মিলল খামারে

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

১০ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর বজরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তিন দিন পর পরাজিত সদস্য প্রার্থীর মরদেহ পাওয়া গেছে একটি মাছের খামারে (ডোবা/প্রজেক্ট)। গতকাল রবিবার সকাল ৯টার দিকে বজরার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফারুক মাস্টারের বাড়ির পাশের খামার থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত জহিরুল ইসলাম (৫৩) বজরা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত হায়াত আহমদের ছেলে। তিনি একই ওয়ার্ড থেকে ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে সদস্য পদে (তালা প্রতীক) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বজরা বাজারের ব্যবসায়ী ছিলেন। তাঁর তিন সন্তান রয়েছে।

জহিরুলের ছোট ভাই জাকির হোসেন বলেন, ‘শনিবার দিবাগত রাতে নিজ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাড়ি ফেরেন জহিরুল। রাত ১২টায় কে বা কারা তাঁকে মোবাইল ফোনে কল করে ডেকে নেয়। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। আজ (গতকাল) সকাল ৬টার দিকে ফারুক মাস্টারের বাড়ির পাশে মাছের প্রজেক্টে স্থানীয় লোকজন মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে আমরাও ঘটনাস্থলে যাই। ’

সোনাইমুড়ী থানার ওসি হারুন অর রশীদ জানান, পুলিশ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। মরদেহে আঘাতের কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। মরদেহের পাশে একটি ফলের রসের প্যাকেট ও কমলা পাওয়া যায়। কিভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে তা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন ছাড়া বলা যাবে না।

 



সাতদিনের সেরা