kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

ভুয়া ডাক্তারকে পুলিশে দিলেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনের একটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুয়া সনদ দিয়ে এমবিবিএস চিকিৎসক হিসেবে নিবন্ধন নেওয়ায় ভোলার দৌলতখানের মো. মাহমুদুল হাসানকে জামিন না দিয়ে পুলিশে দিয়েছেন হাইকোর্ট। শাহবাগ থানার ওসির কাছে হস্তান্তর করে তাঁকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সংশ্লিষ্ট অধস্তন আদালতে হাজির করতে বলা হয়েছে।  

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল সোমবার এ আদেশ দেন। আদালতে মো. মাহমুদুল হাসানের আগাম জামিনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শাহিনুর আলম।

বিজ্ঞাপন

দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ বি এম বায়েজীদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

চীনের একটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে ভুয়া সনদে ১২ জনকে এমবিবিএস চিকিৎসকের রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার অভিযোগে বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রারসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গত বছরের ২ ডিসেম্বর দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১-এ কমিশনের উপপরিচালক সেলিনা আখতার মনি বাদী হয়ে এ মামলা করেন। মামলায় বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রার মো. জাহিদুল হক বসুনিয়া এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন ছাড়াও চিকিৎসক নিবন্ধন পাওয়া ১২ জনকে আসামি করা হয়। তাঁরা হলেন কুমিল্লার বরুড়ার মো. ইমান আলী ও মোহাম্মদ মাসুদ পারভেজ, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সুদেব সেন, টাঙ্গাইলের কালিহাতীর তন্ময় আহমেদ, ভোলার দৌলতখানের মো. মাহমুদুল হাসান, চাঁদপুরের মতলবের মো. মোক্তার হোসাইন, ঢাকার সাভারের মো. আসাদ উল্লাহ, গাজীপুরের কালিয়াকৈরের মো. কাউসার, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের রহমত আলী, বাগেরহাট সদরের শেখ আতিয়ার রহমান, ফেনীর দাগনভূঞার মো. সাইফুল ইসলাম এবং সিরাজগঞ্জ সদরের মো. আসলাম হোসেন।



সাতদিনের সেরা