kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

থার্টিফার্স্টে উন্মুক্ত স্থানে অনুষ্ঠান নয়

ডিএমপি কমিশনারের সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খ্রিস্টীয় নতুন বছরকে (ইংরেজি বছর নামেও পরিচিত) স্বাগত জানাতে থার্টিফার্স্ট নাইটে উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠান না করার অনুরোধ করেছেন ডিএমপি কমিশনার মুহা. শফিকুল ইসলাম। ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টার পর রাজধানীর কোনো বার খোলা রাখা যাবে না এবং রাত ১০টার পর সব ফাস্ট ফুডের দোকান বন্ধ থাকবে বলেও জানান তিনি। এ ছাড়া আতশবাজি, পটকাবাজি, বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং রাত ৮টার পর গুলশান-বনানী এলাকায় বহিরাগতদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

বিজ্ঞাপন

গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি কমিশনার এসব কথা জানান। তিনি বলেন, ‘থার্টিফার্স্টে সাধারণত আমাদের টিনএজ সন্তানরাই পটকা ও আতশবাজি ফুটিয়ে থাকে। এতে অসুস্থ ও বয়স্করা অস্বস্তি ও ভীত হয়ে পড়ে। ’ তাই পটকা ও আতশবাজি না ফুটানোর জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, থার্টিফার্স্ট উদযাপন সামনে রেখে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বহিরাগত কোনো ব্যক্তি বা যানবাহন প্রবেশ করতে পারবে না। সেখানে আবাসিক এলাকায় বসবাসরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গাড়ি নির্ধারিত সময়ের পর পরিচয় দেওয়ার মাধ্যমে শাহবাগ ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। এ ছাড়া স্থানীয় ব্যক্তিরা পরিচয় দিয়ে নীলক্ষেত ক্রসিং দিয়ে হেঁটে প্রবেশ করতে পারবে।

গুলশান ও বনানী এলাকায় রাত ৮টার পর বহিরাগতরা ঢুকতে পারবে না। তবে ওই এলাকায় বসবাসরত নাগরিকরা নির্ধারিত সময়ের পর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) ও মহাখালী আমতলী ক্রসিং দিয়ে পরিচয় দিয়ে ঢুকতে পারবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, রাত ৮টার পর হাতিরঝিল এলাকায় কাউকে অবস্থান করতে দেওয়া হবে না।



সাতদিনের সেরা