kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ২৮ জানুয়ারি ২০২২। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আবরার ফাহাদকে হত্যা

কনডেম সেলে ১৭ জনের ঠাঁই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ১৭ ছাত্রকে রাখা হয়েছে কনডেম সেলে। তাঁদের সবাইকে পরানো হয়েছে কয়েদির পোশাক। আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় ২০ জনের মৃত্যুদণ্ডের রায় হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন রয়েছেন পলাতক।

বিজ্ঞাপন

কারা সূত্রে জানা যায়, গতকাল বুধবার দুপুরে রায় ঘোষণার পর মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া ২২ জনকে বিকেল পৌনে ৩টার দিকে প্রিজন ভ্যানে করে নেওয়া হয় কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে। পরে তাঁদের ১৭ জনের ঠাঁই হয়েছে কনডেম সেলে। যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া অন্য পাঁচজনকে রাখা হয়েছে সাধারণ সেলে।

জানতে চাইলে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ গতকাল সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘রায়ের পর আড়াইটার কিছু পর তাদের কারাগারে আনা হয়। কারাবিধি অনুযায়ী তাদের রাখা হচ্ছে। ’

কারা সূত্র জানায়, গতকাল বিকেলে তাঁদের প্রিজন ভ্যান থেকে কারাগারের ভেতরে নিয়ে যাওয়ার সময় অনেকে চোখ মুছছিলেন। পরে তাঁদের কয়েদির পোশাক পরতে দেয় কারা কর্তৃপক্ষ। কয়েদির পোশাক পরিয়ে ১৭ জনকে নেওয়া হয় কনডেম সেলে। এই সেলটি ফাঁসির মঞ্চের কাছেই।

এক কারা কর্মকর্তা জানান, মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণার পর প্রত্যেক আসামিকেই কনডেম সেলে নেওয়া হয়। তাঁদের কয়েদির পোশাক পরতে দেওয়া হয়। ১৭ জনের  ক্ষেত্রেও একই নিয়ম কার্যকর করা হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, আবরার হত্যা মামলার আসামিদের কাশিমপুরের দুটি কারাগারে রাখা হয়েছিল। গত ২৮ নভেম্বর রায় হওয়ার কথা ছিল। ওই সময় তাঁদের কাশিমপুর কারাগার থেকে ঢাকায় আনা হয়েছিল। এরপর আর তাঁদের কাশিমপুর না পাঠিয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়।



সাতদিনের সেরা